গাড়ি কম, ভাড়া বেশি

0

ছাত্র বিক্ষোভের মুখে প্রায় পরিবহনশূন্য হয়ে পড়েছে নগরী। রাস্তার মোড়ে মোড়ে গাড়ি থামিয়ে ড্রাইভারদের লাইসেন্স দেখার কারণে বৈধ গাড়ি ছাড়া অন্য কোনো যান রাস্তায় নামাচ্ছে না মালিকরা। গণ পরিবহন আছে হাতেগোণা।

এই সুযোগে রিকশা ও সিএনজি অটোরিকশা চালকরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে যাত্রীদের কাছ থেকে। বাধ্য হয়ে বেশি ভাড়া দিয়ে গন্তব্যস্থলে যাচ্ছে সাধারণ মানুষ। অনেকে পায়ে হেঁটে যাচ্ছে পরিবহন সংকটের কারণে।

যাত্রী মো. মানিক হোসেন বলেন, মুরাদপুর থেকে জিইসি মোড় যেখানে নরমাল ভাড়া ৬০ টাকা, সেখানে ওরা ১০০ টাকা ভাড়া নিচ্ছে।

আগ্রাবাদের যাত্রী তানভীর জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, আমি দামপাড়া থেকে আগ্রাবাদ যাবো রিকশায়। ওরা দাবি করছে একশ’ টাকা। কিন্তু নরমাল ভাড়া ষাট টাকা।

রিদুয়ান হক নামের এক যাত্রী জানান, আমি চেরাগী পাহাড় যাবো। কিন্তু কোনো গাড়ি পাচ্ছি না। যা পাচ্ছি তাতে দ্বিগুণ ভাড়া দাবি করা হচ্ছে। যেখানে ত্রিশ টাকা ভাড়া, সেখানে ওরা সত্তর টাকা দাবি করছে।

এ ব্যাপারে রিকশাচালক শারিন মিয়া বলেন, ‘আজকে রোডে গাড়ি কম, কিন্তু যাত্রী। তাই ভাড়াও বেশি।’

অন্যদিকে, ইসলামিয়া কলেজের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ইয়াছিন মৃধা বলেন, আমি দেওয়ানহাট যাবো। কিন্তু গাড়ি পাচ্ছি না। তাই হেঁটে যাচ্ছি।

পরিবহন সংকট থাকায় আন্দোলনকারীরাও গাড়ি না পেয়ে অনেকে হেঁটে, আবার অনেকে ট্রাকে করে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেয় ।

জয়নিউজবিডি/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...