দিদার গ্রেফতার, সাদেকুলের খোঁজে পিবিআই

বাস থেকে ফেলে হত্যা

0

রেজাউল করিম রনিকে যখন বাস থেকে ফেলে দেওয়া হচ্ছিল তখন বাসটির স্টিয়ারিং ছিল সাদেকুল ইসলামের হাতে। তিনি বদলি চালক হিসেবে ওই গাড়ি চালাচ্ছিলেন। মূল চালক দিদারুল আলম ও হেলপার মানিক সরকার যাত্রীদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় করছিলেন। ভাড়া নিয়ে তর্ক করার একপর্যায়ে তারা দুই জন চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেয় রনিকে। স্টিয়ারিংয়ে বসা সাদেকুল তার গায়ের ওপর দিয়ে বাস চালিয়ে দেয়। চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত হন রনি।

এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেফতার বাস হেলপার মানিকের আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব তথ্য উঠে আসে। গত ১ সেপ্টেম্বর লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার নুরিয়া হাজির হাট এলাকা থেকে মানিককে গ্রেফতার করে মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

গত ৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আল ইমরান খানের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় মানিক। সোমবার রাতে কুমিল্লার বালুতোবা এলাকায় চালক দিদারুল আলমকে গ্রেফতার করে সংস্থাটি। এখন ঘাতক বাস চালক সাদেকুলের খোঁজে মাঠে নেমেছে তারা।

পিবিআই কর্মকর্তা সন্তোষ কুমার চাকমা জানান, মানিকের জবানবন্দিতে উঠে আসে ওই সময় গাড়ি চালাচ্ছিল সাদেকুল। মূল চালক দিদার ও হেলপার মানিক যাত্রীদের কাছ থেকে তখন ভাড়া তুলছিল। ভাড়া নিয়ে তর্ক করায় দিদার ও মানিক মিলে বাসের ভেতর রেজাউল করিম রনিকে প্রথমে মারধর করে। একপর্যায়ে চলন্ত বাস থেকে তারা রনিকে ফেলে দেয়। এ সময় বাস না থামিয়ে রনির গায়ের ওপর বাস চালিয়ে দেয় সাদেকুল ইসলাম। তাকেও এ মামলায় গ্রেফতার করা হবে। এ জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে সোমবার রাতে কুমিল্লার বালুতোবা এলাকা থেকে গ্রেফতারকৃত বাসটির মূল চালক দিদারুল আলমকে মঙ্গলবার সকালে আদালতে হাজির করা হয়। সন্তোষ কুমার চাকমা জানান, গ্রেফতার হওয়ার গাড়িচালক দিদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমাণ্ডের আবেদন জানানো হবে।

এর আগে গত ২৭ আগস্ট দুপুরে ভাড়া নিয়ে তর্ক করার জেরে আকবর শাহ থানার কালীরহাট এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে রেজাউল করিম রনিকে (৩৩) বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় বাসের হেলপার। এরপর চালক তার ওপর বাস চালিয়ে দিলে চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত হন রেজাউল করিম রনি। এ ঘটনায় নিহত রনির মামা আবদুর রহমান বাদী হয়ে আকবর শাহ থানায় বাসচালক দিদারুল আলম ও হেলপার মানিক সরকারেকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় পিবিআই।

 

জয়নিউজ/জুলফিকার

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...