পঞ্চাশে উদীচী

0

কে বলেছে হয় না
এসো এই মঞ্চে
উদীচী এমনই এক আয়না।

বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সুবর্ণজয়ন্তী সোমবার। এই দিনে ৫০ বছরে পা রাখে ১৯৬৮ সালের ২৯ অক্টোবর যাত্রা শুরু করা সংগঠনটি।

১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে সংগঠনটি। সত্যেন সেন এবং রণেশ দাশের হাত ধরে জন্ম হয় উদীচীর। বর্তমানে সারা দেশজুড়ে সংগঠনটির ৩৭৬টি শাখা রয়েছে।

এ উপলক্ষে সারাদেশের মতো নগরের চেরাগীতে আয়োজন করা হয় এক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানের শুরুতে ছিল জাতীয় সংগীত পরিবেশন, জাতীয় পতাকা এবং প্রতীকী পতাকা উত্তোলন।

উদীচীর জেলা শাখার সহসম্পাদক জয় সেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উদীচীর কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা. চন্দন দাশ, সংগঠনের চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জায়া বেগম মুশতারী শফি, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের প্রতিষ্ঠাতাকালীন সদস্য তপন শীল, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির চট্টগ্রাম জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অমৃত বড়ুয়া, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শীলা দাশুগুপ্ত, বোয়ালখালী শাখার সদস্য মোহাম্মদ আলী।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টি এবং গণজাগরণ মঞ্চের সদস্য সচিব শরীফ চোহান। তিনি বলেন, উদীচীর এই সুদীর্ঘ যাত্রায় সবাইকে অনেক অভিনন্দন। আমি চাই উদীচী আরো অনেকদূর যাক। আমি আশা করি উদীচী তার কর্মকাণ্ডে গ্রাম-বাংলার সংস্কৃতি তুলে ধরবে।

প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের সভাপতি রাশেদ হাসান বলেন, উদীচী শিল্পগোষ্ঠীর সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা। যখনই আঁধার নেমে এসেছে, তখনই উদীচী দাঁড়িয়েছে সবার পাশে। প্রগতিশীল সংস্কৃতি চর্চাকে ধরে রেখেছে উদীচী।

উদীচীর রাঙ্গুনিয়ার সদস্য তপন দত্ত বলেন, আমি উদীচীর সাথে আছি অনেক বছর। উদীচী এমন একটা সংগঠন যেটি যেকোন সময় যেকোনভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ায়।

আলোচনা শেষে গান পরিবেশন করেন উদীচীর সদস্যরা।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...