অপমানের জ্বালা জুড়ালো এক বোতল বিষে

0

লক্ষ্মীপুরে চুরির ঘটনায় গ্রাম্য সালিশে প্রকাশ্যে মারধরের অপমান সইতে না পেরে রকি নামে এক যুবক বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের ১৫নং ওয়ার্ডের তহির আহাম্মেদ বাড়িতে শুক্রবার (২ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টায় এ ঘটনা ঘটে।
এর আগে পার্শ্ববর্তী পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ডের মতিন মিস্ত্রির বাড়িতে চুরির অপবাদ দিয়ে গ্রাম্য বিচারে মারধর করা হয় রকি ও তার সহপাঠী কাউছারকে। এ অপমান সইতে না পেরে রকি ওই রাতেই বিষপান করে।

পরে রাতে সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রকি পশ্চিম লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের ১৫নং ওয়ার্ডের মো. তহির আহাম্মেদের পুত্র। এ ঘটনায় বিচারের নামে মারধরকারীদের বিচার দাবি করেছেন নিহতের স্বজনরা।

স্থানীয়রা জানান, রকি এলাকায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। তার বিরুদ্ধে চুরি দূরে থাক, কোন অভিযোগই ছিল না। চোর অপবাদ দিয়ে অন্যায়ভাবে তাকে মারধর করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. রিয়াজুল হাসান টিপু জানান, শুক্রবার বিকেলে মতিন মিস্ত্রির বাড়িতে চুরির ঘটনায় একটি সালিশী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। এতে বিচারে রকি ও তার বন্ধু কাউছারকে চুরির অপরাধে শাস্তি দেওয়া হয়। যা হয়েছে তা অন্যায় নয় বলেও দাবি করেন তিনি।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার এসআই মো. মতিন জানান, এঘটনায় এখনো মামলা হয়নি। ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা ময়নাতদন্তের পর তা জানা যাবে বলেও জানান তিনি।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...