পুলিশের সংজ্ঞা

0
পুলিশ এমন একটি মার্তব্য (যাকে মারতে হয়) প্রাণি যাকে জঙ্গিরা গ্রেনেড মারে, সন্ত্রাসীরা গুলি মারে, শিবির পেট্রোল বোমা মারে, ছাত্রদল ককটেল মারে, ছাত্রলীগ ইট পাটকেল মারে।শিক্ষকরা মারে। ছাত্ররা মারে। শ্রমিকরা মারে। টোকাইরা মারে। নারীরা মারে। পুরুষেরা মারে। ধনীরা মারে। গরীবেরা মারে।বড় ভাইয়েরা মারে।
ছোট ভাইয়েরা মারে। সবাই মারে।
এমন একটি বলতব্য (যাকে বলতে হয়) প্রাণি যাকে জঙ্গিরা মুরতাদ বলে, হুজুররা নাস্তিক বলে, বিএনপি সরকারের দালাল বলে, আওয়ামী লীগ বিএনপির এজেন্ট বলে, শিক্ষকরা পিঠের ছাল তুলতে বলে, ছাত্ররা চ্যাটের বাল বলে।

 

এমন একটি দ্রষ্টব্য (যাকে দেখানো যায়) প্রাণি যাকে নাটকে ঘুষখোর দেখায়, সিনেমায় অপরাধীদের দোসর দেখায়। এমন একটি কিংকর্তব্যবিমূঢ় প্রাণি যাকে কেউ পক্ষ বানায়, আর কেউ লক্ষ্য বানায়। আর বেলা শেষে সবাই সেই পুলিশের কাছেই ধর্ণা দেয় একটু নিরাপত্তার আশায়। 

ধরুন, আপনার বন্ধুর সাথে আপনার ঝগড়া হল। আপনি তাকে কুত্তার বাচ্চা বললেন, শুয়োরের বাচ্চা বললেন, চ্যাটের বাল বললেন। কয়েকটা চড় থাপ্পড় দিলেন। এতেও আপনার ঝাল না মেটায় বন্ধুদের সাথে নিয়ে ‘গণধোলাই’ দিলেন। বিকেলে হঠাৎ করে মনে পড়ল কাল পরীক্ষা। সেই বন্ধুর কাছ থেকেই নোট নিতে হবে।
যাবেন তার কাছে??? মনে হয়, যাবেন না। মনে করুন গেলেন। সেই বন্ধু আপনার সাথে কেমন আচরণ করবে? ভেবে হয়তো ভয় পাচ্ছেন নতুবা লজ্জা পাচ্ছেন। 

পুলিশই আপনার সেই বন্ধু। এই বন্ধুটির সাথে সবসময় আপনারা এসবই করেন। এসবই বলেন। শেষে সেই পুলিশ বন্ধুর কছেই ছুটে আসেন। কিন্তু কখনো দেখেছেন বা শুনেছেন পুলিশকে বলতে ‘গতকাল আমাদের ইট মারছিলা তোমার মামলা নিবো না।’ ‘আজকে চ্যাটের বাল বলছ তোমার জিডি নেব না ‘।কখনোই বলেনি। কখনো বলবেও না। পুলিশ আছে বলেই আপনারা আছেন। পুলিশ রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে বলেই আপনারা গাড়ির ভেতর বসে থাকতে পারেন।পুলিশ জেগে আছে বলেই আপনারা শান্তিতে ঘুমাতে পারেন। 

মনে রাখবেন, পুলিশের ভূমিকা ক্রিকেটের আম্পায়ার কিংবা ফুটবলের রেফারির মতো। নিয়মনীতির মধ্যে থেকে খেলা পরিচালনা যেমন আম্পায়ার এবং রেফারির দায়িত্ব। পুলিশের দায়িত্বও দেশের বিদ্যমান আইনের আওতায় নাগরিক অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি সকলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। এটিই পুলিশ সবসময় করে থাকে। এটা করতে গিয়েই আজ এর, কাল ওর, পরশু সবার শত্রু হয়ে যায় পুলিশ। তবুও দিনশেষে সেইসব ‘শত্রু’দের জান ও মালের নিরাপত্তা দিতেই দিনরাত ছুটোছুটি করে এইসব চ্যাটের বাল। কারণ, এরা পুলিশ।
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...