সীতাকুণ্ডে একই পরিবারের তিনজনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

0

সীতাকুণ্ডের বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের টেরিয়াইল এলাকায় একই পরিবারের তিনজনকে কুপিয়ে আহত করেছে নজরুল ইসলাম বাবুল (২২) নামের এক বখাটে। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে সে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে নয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা বখাটে নজরুলকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

আহতরা হলেন গৃহকর্তা নুর ইসলাম (৫৫), তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগম (৪৫) ও তাদের মেয়ে ফারিয়া আক্তার বর্ষা (১৮)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে রফিউজ্জামান মেম্বার বাড়ির নুর ইসলামের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে নুর ইসলামকে কোপাতে থাকে নজরুল। তাকে বাধা দিতে গেলে হোসনে আরা ও ফারিয়াকেও কুপিয়ে আহত করে সে।

এসময় তাদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ঘরের দরজা ভেঙে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান।

এসময় স্থানীয় লোকজন ঘাতক নজরুলকে গণপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহেদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে নজরুলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

বারৈয়ারঢালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন রেহান বলেন, ওই ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য তাকে জানিয়েছেন বখাটে নজরুলের সঙ্গে ফারিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি অন্য ছেলের সঙ্গে ফারিয়ার বিয়ে ঠিক হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নজরুল ওই পরিবারের তিন সদস্যকে কুপিয়ে আহত করে।

সীতাকুণ্ড থানার এসআই জাহেদুল ইসলাম বলেন, ওই তিনজনকে বেধড়ক মারধর করে ঘরের দেওয়ালের সঙ্গে আঘাত করেছে। এতে গুরুতর আহত হয় তিনজন। তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ফারিয়ার পরিবারের সদস্য জয়নাল আবেদীন বলেন, রাতে ওই বখাটে এসে ঘরের সবাইকে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। এসময় সে ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। পরে স্থানীয়রা আহত তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহত নুর ইসলাম ও তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগমের (৪৫) অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ দেলওয়ার হোসেন বলেন, এঘটনায় সীতাকুণ্ড থানায় এখনো কোন মামলা হয়নি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পক্ষ থেকে এজাহার পেলে মামলা রেকর্ড করা হবে। বখাটেকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...