সীতাকুণ্ডে রি-রোলিং মিলে বিস্ফোরণে দগ্ধ ৩

0

সীতাকুণ্ডে একটি অটো রি-রোলিং মিলে ফার্নেস বয়লার (লোহা তরল করার যন্ত্র) বিস্ফোরণে তিনজন শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন। তবে এ ঘটনায় মোট পাঁচ জন শ্রমিক দগ্ধ হন বলে স্থানীয় একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বুধবার (৭ নভেম্বর) সকাল ১০টায় উপজেলার কুমিরা মাজার গেইট এলাকায় গোল্ডেন ইস্পাত অটো রি-রোলিং মিলে এ ঘটনা ঘটে। মিলটি স্থানীয় সাংসদ দিদারুল আলমের পারিবারিক প্রতিষ্ঠান।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকালে কারখানাটিতে হঠাৎ কয়েকটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে কারখানার লোহা তরল করার যন্ত্র (ফার্নেস চুলা) ফুটো হয়ে যায়। এসময় সেখানে কর্মরত ৩ জন শ্রমিকের শরীরে তরল লোহা পড়লে তারা দগ্ধ হন। আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও স্থানীয় বেসরকারি আল আমিন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দগ্ধ শ্রমিকরা হলেন গাইবাদ্ধা জেলার কুবতলা গ্রামের আজির উদ্দিনের পুত্র মোহাম্মদ শামীম (২৪), চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ থানার কাচিয়াপাড় এলাকার রবিউল হোসেনের ছেলে সোহাগ (২৭) ও নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার মনছুরপুর গ্রামের আমির উদ্দিনের ছেলে মিজান (৩২)।

এঘটনায় আরো দুইজন দগ্ধ শ্রমিক আল আমিন হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছে বলে জানিয়েছেন সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক।

আল আমিন হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ তুহিন বলেন, গোল্ডেন ইস্পাত অটো রি-রোলিং মিলে চারজন শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন। তাদের দুই জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। মিজান ও শামীম নামে দুই শ্রমিক এ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন বলেন, গোল্ডেন ইস্পাতে বিস্ফোরণের ঘটনায় সোহাগ নামে এক শ্রমিক দগ্ধ হন। তার শরীরের ৪৫ ভাগ পুড়ে গেছে। চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যেতে বলেছেনে।

কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র এম মঞ্জুরুল আলম বলেন, কোন বিস্ফোরণ হয়নি। লোহা তরল করার যন্ত্র (ফার্নেস চুলা) ফুটো হয়ে তরল লোহা বেরিয়ে পড়লে তিনজন শ্রমিক আহত হন।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মোহাম্মদ জব্বারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিস্ফোরণের ঘটনায় তিনজন শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন বলে শুনেছেন। তাদের মেডিকেলে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...