শুল্ক গোয়েন্দার খোঁয়াড়ে মার্সিডিজ বেঞ্জ

0

জাপান থেকে গাড়ি আমদানির ঘোষণা দিয়ে জার্মানি থেকে মার্সিডিজ বেঞ্জ গাড়ি এনেছে বাংলাদেশ সায়েন্স হাউজ। আমদানি নীতি আদেশ ভঙ্গ করে সে গাড়ি এখন শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের খোঁয়াড়ে।

বুধবার (৭ নভেম্বর) বিকেলে শুল্ক গোয়েন্দার মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমাদের চট্টগ্রামের আঞ্চলিক কার্যালয় গাড়িটির খালাস কার্যক্রম স্থগিত করে। আমদানিকারক কর্তৃক গাড়িটি জাপানের উল্লেখ থাকলেও কায়িক পরীক্ষায় পাওয়া যায় গাড়িটির জার্মানির। আমদানি নীতি ভঙ্গ করে জার্মানি থেকে আনা মার্সিডিজ বেঞ্জে গাড়িটির মূল্য প্রায় কোটি টাকা।

তিনি আরো বলেন, সোমবার (৮ অক্টোবর) ঢাকার বাংলাদেশ সায়েন্স হাউজের (বিন: ১৮১১১০৪০৪৫০) কর্তৃক বি/ই নং-১৪৬২৮৫৭ গাড়ি আমদানি করা হয়। চালানটি খালাসের দায়িত্বে ছিল সিএন্ডএফ এজেন্ট রোলেক্স ট্রেডিং এজেন্সি (এআইএন:৩০১০৪৩১২২)।

আমদানি নীতি আদেশ ২০১৫-২০১৮ এর পরিশিষ্ট ক এর ১ এর নিয়ন্ত্রিত পণ্যের তালিকা ‘ক’ অংশের ৮৭.০১ থেকে ৮৭.০৪ ভুক্ত সকল এইচ এস কোড এর ‘ক’ এর (২) মোতাবেক যে দেশে গাড়ি তৈরি হয়েছে কেবল সে দেশ থেকে পুরাতন গাড়ি আমদানি করা যাবে। তৃতীয় কোন দেশের মাধ্যমে পুরাতন গাড়ি আমদানি করা যাবে না। সে মোতাবেক আমদানি নীতি আদেশ লঙ্ঘন করায় গাড়িটি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্তকরণসহ অন্যান্য আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের জন্য চট্টগ্রাম কাস্টম কমিশনার বরাবর বুধবার (৭ অক্টোবর) একটি প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়েছে।

জয়নিউজ/ফরহান অভি/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...