পিসিসিএফ এলামনাই এসোসিয়েশনের নাট্য উৎসব

0

ঐতিহ্যের রঙে রঙিন বাংলাদেশ। দেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে থাকা হাজারো ঐতিহ্যকে মঞ্চে তুলে আনার অনন্য প্রয়াসে পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কালচারাল ফোরাম এলামনাই এসোসিয়েশন (পিসিসিএফ এলামনাই এসোসিয়েশন) দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করল নাট্য উৎসব ২০১৮।

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) বিকাল ৫টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয় এ জমকালো আয়োজন। পুরো আয়োজন উৎসর্গ করা হয় প্রয়াত দুই দিকপাল সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু ও আবৃত্তিশিল্পী রণজিৎ রক্ষিতকে।

এ সময় আইয়ুব বাচ্চু স্মরণে সংগীত পরিবেশন করে পিসিআইইউ মিউজিক ফ্রিক দল। আর রণজিৎ রক্ষিতকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন আবৃত্তিশিল্পী শুভাশীষ শুভ ও ভাণ্ডারি আরিফ। এরপর শুরু হয় নাট্য উৎসব। ছয়টি দলে অর্ধ শতাধিক কুশীলব এতে অংশ নেয়। দলগুলো হলো আরেফীন শাহীনের নির্দেশনায় আলোছায়া, রাকিব হোসেনের নির্দেশনায় রেপটোর্স, তন্ময় চক্রবর্তীর নির্দেশনায় দ্যুতি, ফাহিম আল সামাদের নির্দেশনায় রেনেসাঁ, সৌরভ সেনের নির্দেশনায় টিম জুনিয়র, ইফতেখার কাইছারের নির্দেশনায় অরবিন্দ। বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন মোর্শেদ হোসেন রিয়াদ, মীর মো. শাহ অলি উল্লাহ মাশফিক ও অনিক বড়ুয়া অভ্র।

মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে একক ও দ্বৈত নৃত্য, গান ও আবৃত্তি পরিবেশিত হয়। এরপর প্রাক্তন সদস্য পার্থ প্রতীম নন্দী, কানিজ ফাতেমা, নাসরিন জুঁই, তানিম চৌধুরী, শীলা- স্মৃতি রোমন্থনের পাশাপাশি সকলের প্রতি মানবিক বোধ জাগিয়ে তোলার আহ্বান জানান।

নাট্য উৎসব ২০১৮-এ জয়ের খেতাব অর্জন করে সৌরভ সেনের টিম জুনিয়র। প্রথম রানার আপ ইফতেখার কাইছারের দল অরবিন্দ, দ্বিতীয় রানার আপ হয় তন্ময় চক্রবর্তীর দ্যুতি। স্ক্রিপ্ট রাইটিংয়ে রাশেদুল মামুন হৃদয় প্রথম, বিপা দাশ দ্বিতীয় ও ফাহিম আল সামাদ তৃতীয় স্থান অর্জন করেন। সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতে নেন ফয়সাল, ইসরাত নাসিম, অঞ্জন দাশ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন তানভীর রানভি ও ফারজানা রুমা। আয়োজকদের পক্ষ থেকে আগামীতে আরো বড় পরিসরে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

জয়নিউজ/পার্থ/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...