সতীত্ব হারিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা গৃহবধূর

অভিযোগ এসআইয়ের বিরুদ্ধে

0

অস্ত্র ও ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে স্বামীকে- এই ভয় দেখিয়ে পুলিশের এক এসআই এক গৃহবধূকে তুলে নিয়ে যান অজ্ঞাত স্থানে। এরপর তাকে টানা ৯ দিন ধর্ষণ করেন তিনি। একপর্যায়ে ওই অজ্ঞাত স্থান থেকে পালিয়ে আসেন ধর্ষিতা গৃহবধূ। সতীত্ব হারিয়ে ঘরে এসে বিষপান করে আত্মহনন করতে উদ্যত হন তিনি।

এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাকের কাছে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীর স্বামী। অভিযোগ ওঠা এসআইয়ের নাম এয়ার হোসেন। তিনি বর্তমানে নগরের বায়েজিদ বোস্তামি থানায় কর্মরত। ধর্ষিত নারী বর্তমানে ভর্তি আছেন নগরীর জিইসি এলাকার বেসরকারি একটি হাসপাতালে।

সিএমপির উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক বলেন, এসআই এয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। এরপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। একজন অতিরিক্ত উপ কমিশনার পদমর্যাদার কর্মকর্তাকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগে ভুক্তভোগী নারীর স্বামী উল্লেখ করেন, গত ১৮ আগস্ট তাকে ইয়াবা ও অস্ত্র মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন বায়েজিদ বোস্তামি থানার এসআই এয়ার হোসেন। এসময় তিনি ভুক্তভোগীর স্ত্রীকেও এই হুমকি দেন। একপর্যায়ে তার স্ত্রীকে তুলে নিয়ে যান বাসা থেকে। অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখেন ৯ দিন। এসময় তাকে দফায় দফায় ধর্ষণ করা হয়। পরে সুযোগ পেলে ওই স্থান থেকে পালিয়ে আসেন ওই গৃহবধূ।

অভিযোগ ভুক্তভোগী আরো লেখেন, বাসায় আসার পর বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে গত ৩০ অক্টোবর বিষপানে করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তার স্ত্রী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে জিইসি মোড়ের একটি  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে এসআই এয়ার হোসেনের মোবাইলে কল করা হলেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

জয়নিউজ/এফও/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...