চিকিৎসকদের ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হবে : মেয়র

0

শত সীমাবদ্ধতার মধ্যেও চিকিৎসকেরা ভালোভাবেই চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। চিকিৎসকদের ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হবে। রোগীরা গরম হলেও আপনাদের শান্ত থাকতে হবে। চিকিৎসক, নার্স ও হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে সেবার মনমানসিকতা নিয়ে স্ব স্ব দায়িত্ব পালন করার আহ্বান জানান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

সোমবার (৬ আগস্ট) দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (চমেক) ডিজিটাল ম্যামোগ্রাম মেশিন উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

চমেকের চিকিৎসা সেবা আধুনিকায়নের লক্ষ্যে ১৮ কোটি টাকা মূল্যের তিনটি মেশিন মেয়র উদ্বোধন করেন । মেশিনগুলোর মধ্যে রয়েছে ১২ কোটি টাকা মূল্যের কোবাল্ট মেশিন, ২ কোটি টাকার ডিজিটাল ম্যামোগ্রাম ও ৪ কোটি টাকার ব্রাকিথেরাপি মেশিনের বাংকার। এছাড়া চমেকের ১২ নন্বর ওয়ার্ডে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য হৃদরোগ বিভাগ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন মেয়র। এই ব্লকটির নামকরণ করা হয়েছে মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. ফজলে রাব্বি।

মেয়র বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে ক্যান্সার রোগীর সংখ্যা প্রায় ১২ লাখ। এর মধ্যে শুধু চট্টগ্রামে ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ লাখ। রোগীদের মধ্যে ফুসফুস, মুখগহ্বর, রক্তনালি, জরায়ু ও স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তের সংখ্যাই বেশি। মহিলা রোগীদের মধ্যে শতকরা ৩০ ভাগ স্তন এবং জরায়ু-মুখ ক্যান্সারে আক্রান্ত। নারীদের স্তন টিউমার ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগ নির্ণয়ে ব্যবহৃত হবে এ ম্যামোগ্রাফি মেশিন।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার পর থেকেই স্তন পরীক্ষার অত্যাধুনিক যন্ত্র এটাই। বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছা প্রতিফলন হিসেবে এই রোগনির্ণয় যন্ত্র চমেকে সংযুক্ত হলো। এজন্য বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান সিটি মেয়র।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ব্রাকি থেরাপী মেশিনের বাংকার নির্মাণ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, ডিজিটাল মেমোগ্রাম মেশিন ও ১২ নং ওয়ার্ডে বীরমুক্তিযোদ্ধা কিউবিকল উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন। চমেক হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার সম্মেলন কক্ষে অনুিষ্ঠত সভায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অশোক কুমার দত্ত, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়শনের (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি মুজিবুল হক খান, সাধারণ সম্পাদক ফয়সল ইকবাল, চট্টগ্রাম জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাহাব উদ্দিন, নগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. মোজাফফর আহমদ, হৃদরোগ বিভাগের প্রধান ডা.অধ্যাপক প্রবীর কুমার দাশ, রেডিওলোজি বিভাগের প্রধান ডা. সুভাষ মজুমদার, রেডিওথেরাপি বিভাগের প্রধান ডা. সাজ্জাদ মো. ইউসুফ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সহপরিচালিক ডা. ফজলে রাব্বী।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...