কয়লা নয়, পুড়ছিল কাঠ!

0

হাটহাজারীতে মেসার্স সিরাজ ব্রিক্স ম্যানুফ্যাকচার (এসবিএম) নামে একটি ইটভাটায় কয়লার পরিবর্তে কাঠ পোড়ানোর দায়ে বিপুল পরিমাণ কাঠ জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে হাটহাজারী উপজেলার ধলই ইউনিয়নের নুরালী মিয়ার হাটের পশ্চিমে শান্তিরহাট বাজারের শান্তিরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের ওই ইটভাটায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুহুল আমিন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিয়াজ মোর্শেদ।

জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের এসবিএম ইটভাটায় জ্বালানি কাঠের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকা শর্তেও নিয়ম-নীতিকে তোয়াক্কা না করে দেদারসে পোড়ানো হচ্ছিল কাঠ। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইটভাটাটিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও।

এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই ইটভাটার মালিক মো. এনামুল হক চৌধুরী প্রকাশ মামুনকে আটক করতে পারেনি। তবে আইন অমান্য করে ইটভাটায় কাঠ পোড়ানোর দায়ে ওই ইটভাটা থেকে প্রায় ৫ ট্রাক গামারী, আকাশমনি, সেগুন ও গর্জন কাঠ জব্দ করা হয়।

এ ব্যাপারে ইউএনও রুহুল আমিন জানান, ইট প্রস্তুত এবং ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৩ এর ৬ ধারায় ইটভাটায় জ্বালানি কাঠের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এরপরও এসবিএম নামে ওই ইটভাটায় কয়লার পরিবর্তে দেদারসে কাঠ পোড়ানো হচ্ছিল। এজন্য ওই ইটভাটা থেকে কাঠ পোড়ানোর দায়ে আনুমানিক ৫ ট্রাক গামারী, আকাশমনি, সেগুন ও গর্জন কাঠ জব্দ করা হয়েছে এবং ভাটার মালিকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

জয়নিউজ/আবু তালেব/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...