লেটস টকে প্রধানমন্ত্রীর অজানা অনেক কথা

0

“আমার নিজের বলতে কিছু নেই। রাতে ৫ ঘণ্টা ঘুমাই। আর বাকি সময় চেষ্টা করি কত দ্রুত আমার কাজগুলো শেষ করতে পারি।”

বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) রাজধানীতে গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) আয়োজিত ‘লেটস টক উইথ শেখ হাসিনা’ অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকার এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো তরুণদের মুখোমুখি হন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে তরুণদের নানা প্রশ্নের জবাব দেন শেখ হাসিনা। শোনেন নতুন প্রজন্মের তরুণদের স্বপ্নের কথাও।

এত পরিশ্রমের মাঝে শরীরকে কিভাবে ঠিক রাখছেন এমন এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, “আমাদের জীবনে রুটিন ঠিক থাকে না। তবে ফিট থাকতে আমি নামাজ পড়ি নিয়মিত। তেমন ব্যায়াম করার সুযোগ হয় না। তবে চেষ্টা করি সকালে উঠে ছাদে একটু হাঁটতে।”

রাজনীতিতে কখন কীভাবে এলেন এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “স্কুলজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলাম। সেই সময় শিক্ষা কমিশন রিপোর্ট বাতিলের আন্দোলন, তারপর আরো বিভিন্ন আন্দোলন কাছ থেকে দেখেছি। যখন আন্দোলন হতো, তখন স্কুল পালিয়ে চলে যেতাম সেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় মিটিং শোনার জন্য।”

তরুণদের সাথে আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী জানালেন নিজের মনের ইচ্ছেও। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার ইচ্ছে ছিল জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ছোটবেলায় আমার ইচ্ছা ছিল ডাক্তার হব। এসএসসি পরীক্ষা দিলাম, তখন দেখলাম অঙ্কে কাঁচা। আর বন্ধুরা সবাই আর্টসে ছিল, আমিও আর্টসে ভর্তি হই। এরপর ইচ্ছা ছিল শিক্ষক হবার। আবার শিক্ষক মানে প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক। বাচ্চাদের পড়াব।

ডা. নুজহাত চৌধুরী উপস্থাপনায় লেট’স টক অনুষ্ঠানে রান্নাঘরের কথা থেকে শুরু করে কৈশোরের দুরন্তপনা, স্কুলজীবনের মজার ঘটনা, মায়ের কাছে আবদার মেটানোর কৌশল, পারিবারিক ট্র্যাজেডি, শেখ হাসিনার ব্যক্তি ও রাজনৈতিক জীবনের নানা অজানা কথা উঠে আসে।

জয়নিউজ/পলাশ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...