বিভেদ ভুলে প্রচারণায় মামুন

0

বিভেদ ভুলে অবশেষে সীতাকুণ্ডের সাংসদ দিদারুল আলমের জন্য নৌকায় ভোট চেয়ে গণসংযোগে নামলেন সীতাকুণ্ড উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি এস এম আল মামুন।

দিদারুল আলমের সাথে মামুন মুরাদপুর ও বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের ঘরে ঘরে গণসংযোগ করেন। এতে করে প্রচারণায় নেতাকর্মীরাও ব্যাপক উৎসাহ পাচ্ছে।

চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি এ বি এম আবুল কাসেম মাস্টারের ছেলে মামুন। কিন্তু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদে থাকায় বাদ পড়েন মামুন। বাকি ১১ প্রার্থীর সাথে লড়াই করে শেষ পর্যন্ত মনোনয়ন পান দিদারুল আলম এমপি। এ নিয়ে বাদ পড়া প্রার্থী ও তাদের অনুসারী নেতাকর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করছিল।

শেষ পর্যন্ত সোম ও মঙ্গলবার ( ১৭ ও ১৮ ডিসেম্বর) দিদারুল আলমের সাথেই নৌকার প্রচারণায় নামলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মামুন। তারা দু’জনেই নিজ নিজ অনুসারী নেতাকর্মীদের নিয়ে উপজেলার মুরাদপুর ও বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান। এসময় তাঁরা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকার কোনো বিকল্প নেই জানিয়ে ভোটারদের কাছে দলের জন্য দোয়া ও নৌকায় ভোট প্রার্থনা করেন।

প্রচারণাকালে আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আ ম ম দিলসাদ, মুরাদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ হোসেন নিজামী বাবু, সাবেক চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ, জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, গোলাম মহিউদ্দিন, ইসমাইল হোসেন সিরাজী প্রমুখ।

উপজেলা চেয়ারম্যান এস. এম. আল মামুন বলেন, রাজনীতিতে প্রতিযোগিতা থাকে। আমাদের মধ্যেও ছিল। আমিও নৌকার মনোনয়ন চেয়েছিলাম। কিন্তু আমি উপজেলা চেয়ারম্যান থাকায় দল আমাকে দেয়নি। দল দিদারুল আলমকে দিয়েছেন। এখন তিনিই আমাদের দলের একমাত্র প্রার্থী। তাকে জয়ী করতে হবে, এটাই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

এ ব্যাপারে দিদারুল আলম এমপি বলেন, দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে। আমি দলের একজন প্রতিনিধি হয়ে জয়ের জন্য কাজ করছি। আমাদের অনেক নেতাকর্মী আছেন। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, সবাই নৌকার বিজয় চান। তাই সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করছেন।

জয়নিউজ/সেকান্দর/পলাশ/আরসি
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...