নতুন বইয়ের আনন্দ চসিকের ৪০ হাজার শিক্ষার্থীর

0

নতুন ক্লাস। নতুন বই। নতুন বইয়ের পাতায় পাতায় নতুন গল্প, কবিতা আর অজানাকে জানার আগ্রহ। বছরের প্রথম দিনেই নতুন বইয়ের ঘ্রাণে মাতোয়ারা হয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) পরিচালিত স্কুলগুলোর ৪০ হাজার শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে চার লাখ বিনামূল্যের বই বিতরণ করা হয়েছে। সন্তানদের এই বাঁধভাঙা খুশির আনন্দ ছড়িয়েছে অভিভাবকদের মধ্যেও।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সকালে বাংলাদেশ মহিলা সমিতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ (বাওয়া) এবং অংকুর সোসাইটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের হাতে বই দিয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরাও।

অনুষ্ঠানে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমাদের সময় শিক্ষার্থীরা পুরাতন বই পড়ে লেখাপড়া করেছে। আর তোমরা বছরের প্রথম দিনেই নতুন বই পেয়েছ। এ ধরনের উদ্যোগের বাস্তবায়ন সত্যিই দুর্লভ ও কঠিন কাজ। বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছার কারণেই এ ধরনের একটি দুরূহ কাজ সম্ভব হয়েছে। এজন্য মেয়র বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান।

মেয়র বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় আজ থেকে সারাদেশে একযোগে নতুন বই বিতরণের কর্মসূচি শুরু করেছে। এর আওতায় দেশে ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে ৩৫ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৮২টি নতুন বই দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ভালো ফল এবং মেধা ও প্রতিভা বিকাশে স্কুলশিক্ষকদের একা দায়িত্ব পালন করা সম্ভব নয়, অভিভাবক মহলেরও দায়িত্ব রয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য জামশেদুল আলম চৌধুরী, শফিকুল আলম, জিয়াউদ্দিন শাহীন, মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, শিক্ষক প্রতিনিধি আবদুল মোমিন, শিমুল মুহুরী ও হাসিনা বেগম উপস্থিত ছিলেন।

এরপর মেয়র নাসিরাবাদ অংকুর সোসাইটি বালিকা বিদ্যালয়ে বিনামূল্যে বই বিতরণ করেন। এসময় প্রতিষ্ঠান প্রধান লিলি বড়ুয়া, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্যদের সদস্য মুহাম্মদ শাহ আলম, সৈয়দ শাহরিয়া পারভেজ, শিপ্তী মহাজন, শিক্ষক প্রতিনিধি দেল আফরোজ খানম, এহসানুজ্জমান, সহকারী শিক্ষক চন্দন কুমার দাশ এবং সোসাইটির সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ সাজ্জাদ ও প্রকৌশলী হারাধান আচার্য উপস্থিত ছিলেন।

জয়নিউজ/কাউছার/বিশু/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...