শুল্ক গোয়েন্দাদের জালে ঘোষণা বহির্ভূত পণ্যের চালান

0

ঘোষণা বহির্ভূত পণ্য আমদানি করায় মেসার্স ওমর ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের পণ্যের চালান আটকে করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। বুধবার (২ জানুয়ারি) শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের কায়িক পরীক্ষায় ৫২ লাখ ১৫ হাজার ১৪৭ টাকার চালানটি ধরা পড়ে।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালকের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার মৌলভীবাজারের আমদানিকারক মেসার্স ওমর ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের (বিন ০০০৬৪৪৩৮৭) পণ্যের চালানের কায়িক পরীক্ষার সময় ঘোষণার অতিরিক্ত পণ্য পাওয়া যায়। যে কারণে তিনটি কনটেইনারের মধ্যে একটির খালাস প্রক্রিয়া পুরোপুরি  স্থগিত করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়, চালানটি খালাসের দায়িত্বে সিএন্ডএফ এজেন্ট ছিল ফাতেমা ট্রেড এজেন্সি। চালানে ১ হাজার ১৬ কেজি চাবির রিংয়ের আনার ঘোষণা দেওয়া হলেও কায়িক পরীক্ষায় কনটেইনারে ভিতরে মেলে ১ হাজার ৩৭৭ কেজি রিং। একইসঙ্গে ১ হাজার ৫৭ কেজি ফেস্টিভ্যাল আর্টিকেলের ঘোষণা দিয়ে আনা হয় ১ হাজার ২৬৮ কেজি ফেস্টিভ্যাল আর্টিকেল।  এছাড়া তারা ১ হাজার ৮০ কেজি নেইল কাটার  আনার ঘোষণা  দিয়ে আনে ২ হাজার ৫৬০ কেজি নেইল কাটার, ২ হাজার ৫৬০ কেজি  কটন বাডের ঘোষণা দিয়ে আনে ৪ হাজার ৫৩১ কেজি কটন বাড এবং ৬৩৭ কেজি অর্ডিনারি শেভারের ঘোষণা দিয়ে তারা আনে ৪ হাজার ৩৬১ কেজি। কনটেইনারের ভেতরে কায়িক পরীক্ষার সময় ৩ হাজার ১০ কেজি প্যাড লক এবং ৭৫২ কেজি মেজারিং টেপ পাওয়া যায়।

পণ্যের ঘোষণা অনুযায়ী শুল্কায়নযোগ্য মূল্য দাঁড়ায় ১১ লাখ ৮২ হাজার ৬৩১ টাকা এবং ঘোষণা বহির্ভূত শুল্ক করের পরিমাণ দাঁড়ায় ৭ লাখ ৯৩ হাজার ৫৬১ টাকা। চালানটির পণ্যের সর্বমোট মূল্য ১৯ লাখ ৭৬ হাজার ১৯২ টাকা। শুল্ক ফাঁকি  দেওয়া রাজস্বসহ চালানের মোট মূল্য দাঁড়ায় ৫২ লাখ ১৫ হাজার ১৪৭ টাকা।

জয়নিউজ/ফয়সাল/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...