রাউজানে হত্যার পর লাশ গুমের অভিযোগ

0

রাউজানে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে নিহত নুরুল আলমের (৬০) লাশ গুম করার অভিযোগ করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। নুরুল আলম উরকিরচর ইউনিয়নের হারপাড়া গ্রামের করম আলী হাজীর বাড়ির সুলতান আহম্মদের ছেলে।

শনিবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে চট্টগ্রাম কাপ্তাই সড়কের উরকিরচর ইউনিয়নের উরকিরচর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, নুরুল আলম তিন বছর আগে আরব আমিরাত থেকে দেশে ফেরেন। দেশে এসে একটি ট্রাক ক্রয় করে ভাড়ায় দিয়ে ভাড়ার টাকায় পরিবারের ব্যয়ভার চালাতেন।

স্থানীয় ও নুরুল আলমের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শনিবার সকাল ৭ টার দিকে নুরুল আলম ঘর থেকে বের হয়ে উরকিরচর বাজারে যান। এসময় ৪/৫ জনের একটি দল নুরুল আলমকে সড়কের উপর আটকে রেখে ছুরিকাঘাত করে। আহত অবস্থায় দুর্বৃত্তরা একটি অটোরিকশায় নুরুল আলমকে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর নুরুল আলমের পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন জায়গায় যোগাযোগ করেও তার হদিস পাননি। নুরুল আলমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে।

নুরুল আলমের স্ত্রী নুর বানু জয়নিউজকে বলেন, ঘটনার পর শনিবার বিকেলে রাউজান থানায় মামলা করতে গেলে রাউজান থানার ডিউটি অফিসার নুর বানুকে বলেন, ওসি এখন থানায় নেই। পরে আসেন।

রাউজান নোয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শেখ জাবেদ মিয়া জয়নিউজকে বলেন, ঘটনাস্থলে প্রচুর রক্তের চিহ্ন রয়েছে। নুরুল আলমকে কারা ছুরিকাঘাত করে সিএনজি অটোরিকশায় তুলে নিয়ে গেছে এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

নুরুল আলমের ভাই আমিরাত প্রবাসী আকরাম মুঠোফোনে জয়নিউজকে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমার ভাইকে হত্যা করে তার লাশ গুম করা হয়েছে।

জয়নিউজ/শফিউল আলম/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...