বুড়ো-বুড়ির ব্যান্ডদল

0

সঙ্গীতে মজেছেন নাট্যাঙ্গনের জনপ্রিয় চার তারকা আবুল হায়াত, মামুনুর রশিদ, দিলারা জামান ও শহীদুজ্জামান সেলিম। তাও আবার ব্যান্ড সঙ্গীতে। চারজনে মিলে তারা একটি ব্যান্ডদল গঠন করেন। নাম দিয়েছেন ‘লিটলডট’। তারা প্রমাণ করেন, বয়স বাড়লেও তাদের মনের বয়স বাড়েনি।

দীর্ঘ ৪০ বছর আগে ভেঙে যায় তাদের এই ব্যান্ডদল। কিন্তু দলের একমাত্র নারী সদস্য লায়লার সঙ্গে দেখা হওয়ার পর আবারও গানের মঞ্চে ফিরতে উদগ্রীব হয়ে ওঠেন দলটির কনিষ্ঠ সদস্য রঞ্জন। এ সুবাদে চার দশক পর আবারো সক্রিয় হয়ে ওঠে ব্যান্ডদল ‘লিটলডট’। সুরের মূর্ছনায় চোখেমুখে তারুণ্যের দীপ্তি ভেসে ওঠে তাদের।

প্রবাস জীবন থেকে ফিরে ব্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য রঞ্জন অর্থাৎ শহীদুজ্জামান সেলিম পুরানো দলের সবাইকে খুঁজে বের করার কাজে নেমে পড়েন। তবু কেউ কেউ বাদ পড়ে যায়, খোঁজ মেলে না তাদের। যাদের পাওয়া যায়, তাদের নিয়েই আবার নতুন করে ব্যান্ডের কাজ শুরু হয়।

বয়সের কাছে হার না মানা এই মানুষগুলো চল্লিশ বছর পর আবার নতুন করে গান বাঁধেন। পরে ইউটিউবে গানটি মুক্তি দেন। সঙ্গে সঙ্গে আলোড়ন ওঠে। এরপর টেলিভিশনে লাইভ অনুষ্ঠানে গিয়ে হারানো এক ব্যান্ড সদস্যকে তারা খুঁজে পান হাসপাতালে শয্যাশায়ী অবস্থায়। এই সদস্যটি হচ্ছেন ড. ইনামুল হক।

বুড়ো-বুড়িদের এমন তারুণ্যময় মুহূর্তকে ‘আবার এলো যে সন্ধ্যা’ টেলিছবির মাধ্যমে ক্যামেরাবন্দি করেছেন নাট্যনির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ। এর কাহিনি লিখেছেন মাসুম শাহরিয়ার।

এর বিভিন্ন চরিত্রে আরও আছেন সাফা কবির, মিশু সাব্বির, সুজাত শিমুল ও আহমেদ সুজন। আসছে কোরবানির ঈদে টেলিছবিটি চ্যানেল আইয়ে প্রচারিত হবে।

জয়নিউজ/আরসি

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...