রাউজানে হত্যার ঘটনায় যুবলীগ নেতাকে আসামি করে মামলা

0

রাউজানে নুরুল আলম (৬০) নামের এক বৃদ্ধকে হত্যার ঘটনার মামলা হয়েছে। নিহতের স্ত্রী নুর বানু বাদী হয়ে মঙ্গলবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে অপহরণের পর হত্যা করে লাশ গুমের মামলা করেছেন।

মামলায় ইউনিয়ন যুবলীগের জৈষ্ঠ্য সহসভাপতি আবুল কালাম ওরফে আবু, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদসহ ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৫/৬ জনকে আসামি করা হয়। অন্যান্য আসামিরা হলেন হারপাড়া গ্রামের নুরুল আলম বাঙ্গালীর ছেলে আইয়ুব রানা (২৪), আব্দুল খালেকের ছেলে মু. মিরাজ (২০), এমরান (৩২), মাহবুব আলম (৩২), ওয়াহেদুল আলম (৩৫), আব্দুল খালেক (৫০), শফিউল আলম (৩২), মু. জাফর, মেজবাহ উদ্দিন (৪২) ও শেখ মফিজ (৪৫)।

ঘটনার পর থেকেই নিহতের পরিবার গণমাধ্যম ও পুলিশের কাছে দাবি করেছিল, নুরুলকে হত্যা করে লাশ গুম করেছে উরকিরচর ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি আবুল কালাম ওরফে আবুসহ তার ভাইয়েরা।

নোয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদশর্ক শেখ জাবেদ মিয়া জয়নিউজকে বলেন, অপহরণ করে হত্যার পর মঙ্গলবার দুপুরে  মামলা দায়ের করেছেন নিহতের স্ত্রী। তিনি বলেন আসামিদের বাড়িতে কয়েক দফা অভিযান চালিয়ে পাওয়া যায়নি। পরিবারের পুরুষ সদস্যরা পলাতক রয়েছে। অভিযান অব্যাহত থাকবে। দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

উল্লেখ, শনিবার (৫ জানুয়ারি) কাপ্তাই সড়কের উরকিরচর বাজারে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে ছুরিকাঘাত করে নুরুলকে অপহরণ করে নিয়ে যায় ৪-৫ জন দুবৃর্ত্ত। এ ঘটনার ৩০ ঘণ্টা পর হাটহাজারী উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের লালা চন্দ্রা বিলের খঁড়ের গাদায় লুকানো নুরুলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

জয়নিউজ/শফিউল/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...