চবিতে ছাত্রদল নেতাকে পেটাল ছাত্রলীগ

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন হৃদয়কে মারধর করেছেন শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। চিকিৎসার জন্য তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার (২৩ জানুয়ারি) বিকাল পৌনে চারটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ৩য় তলায় এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার সাজ্জাদ হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। ৩য় বর্ষের পরীক্ষা শেষে ফেরার সময় নিজ পরীক্ষা হলের সামনেই মারধরের শিকার হন তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হৃদয় পরীক্ষা কক্ষ থেকে বের হওয়ার পর ছাত্রলীগের ১০-১৫ জন নেতাকর্মী তাকে মারধর করে। মারতে মারতে নির্মাণাধীন নতুন কলা ভবনের সামনে নিয়ে গেলে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা উপস্থিত হয়ে তাকে উদ্ধার করে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নেয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর লিটন মিত্র জয়নিউজকে জানান, ঘটনা শুনে আমরা তাকে উদ্ধার করি। বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা নেওয়ার পর পুলিশি নিরাপত্তায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে মারধরের কথা স্বীকার করে চবি ছাত্রলীগ নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় বলেন, হৃদয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়। এছাড়াও বিভিন্ন নাশকতা ও উস্কানিমূলক তথ্যও পাওয়া গেছে তার কাছে। এ জন্যই আমাদের জুনিয়রেরা তাকে ধরে পুলিশে দিয়েছে।

তবে শাখা ছাত্রদল সভাপতি কে আলম কটূক্তি ও নাশকতামূলক তথ্যের কথা অস্বীকার করে জয়নিউজকে বলেন, এ ধরনের অভিযোগ মনগড়া। যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে তারা চিহ্নিত দুষ্কৃতিকারী। প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। আর প্রক্টরের সরাসরি ইন্ধনের কারণেই এসব ঘটনা বারবার ঘটছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

জয়নিউজ/নবাব/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...