পর্যটকে মুখর রাঙামাটি

0

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি রাঙামাটি পর্যটকের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠছে। প্রকৃতির সৌন্দর্যের টানে একটু প্রশান্তির খোঁজে রাঙামাটিতে ছুটে আসছেন পর্যটকরা।

প্রকৃতিপ্রেমী ও ভ্রমণপিপাসু মানুষের পদচারণায় রাঙামাটির বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র, আবাসিক হোটেল, বস্ত্র বিতান ও হোটেল-রেস্টুরেন্ট জমজমাট হয়ে উঠেছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে মানুষের ঢল নামছে রাঙামাটির বিভিন্ন পর্যটন স্পটগুলোতে।

রাঙামাটিতে পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ রয়েছে- ঝুলন্ত সেতু, প্রাকৃতিক সুবলং ঝর্ণা স্পট, কাপ্তাই লেক, সাজেক, পলওয়েল পার্ক, আরণ্যক পর্যটন স্পট, ডিসি বাংলো পার্ক, বড়গাং, আসামবস্তি-কাপ্তাই সড়ক, পেদা টিংটিং উল্লেখযোগ্য।

রাঙামাটি ঝুলন্ত সেতু এলাকায় সরেজমিনে দেখা গিয়ে দেখা গেছে, পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়।

সাতক্ষীরা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক মো. আবুল হাসেম বলেন, রাঙামাটিতে বেড়াতে এসে ভালোই লাগছে। আমি এই প্রথম রাঙামাটি এসেছি। রাঙামাটির প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আমাকে মুগ্ধ করেছে।

আরিফুজ্জামান নামের আরেক পর্যটক বলেন, রাঙামাটির প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে বেশ কয়েকবার রাঙামাটি ভ্রমণ করেছি। কাপ্তাই লেকের স্বচ্ছ জলে নৌ-ভ্রমণ খুব ভালো লাগে।

রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু এলাকার ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম জানান, বর্তমান পর্যটন মৌসুমে ভালোই ব্যবসা হচ্ছে। পর্যটক বেশি আসায় বেচাকেনা ভালো।

রাঙামাটি স্থানীয়দের তৈরি বিভিন্ন পণ্যের দোকানেও পর্যটকদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। পর্যটকরা ভ্রমণের পাশাপাশি কেনাকাটাও করেছেন।

পর্যটন নৌযান ঘাট ইজারাদার রহমত আলী জানান, বর্তমানে টুরিস্ট বোটের চাহিদা বেড়েছে। পর্যটকের আগমন বাড়ায় টুরিস্ট বোট চালকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। বোটে করে প্রাকৃতিক সুবলং ঝর্ণা, টুক টুক ইকোভিলেজ, চাং পাং রেস্টুরেন্ট, পেদা টিং টিচংসহ বিভিন্ন স্থানে যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।

রাঙামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ুয়া জানান, পর্যটকদের বরণ করতে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বর্তমান সময় পর্যটনের মৌসুম হওয়ায় প্রতিদিন অনেক পর্যটক আসছেন। গতবারের চেয়ে এবারে আরো বেশি পর্যটক রাঙামাটি ভ্রমণে আসবেন বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন।

রাঙামাটি হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মঈন উদ্দিন সেলিম জয়নিউজকে বলেন, সমিতিতে প্রায় ৪৫টি হোটেল-মোটেল আছে। বর্তমানে হোটেল-মোটেলে ভালো বুকিং হচ্ছে। পর্যটক সমাগমে আমরা সন্তুষ্ট

জয়নিউজ/শফিক/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...