ঘরের মাঠেই প্লে অফ নিশ্চিত ভাইকিংসের

0

স্বাগতিক দল চিটাগং ভাইকিংস বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ঘরের মাঠে অবশেষে জয়ের দেখা পেয়েছে। বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বের শেষ দিনের প্রথম খেলায় ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১১ রানে হারিয়ে রংপুর এবং কুমিল্লার পর তৃতীয় দল হিসেবে চিটাগং নিশ্চিত করেছে শেষ চারের টিকিট।

বুধবার (৩০ জানুয়ারি) সাকিবের ঢাকার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মুশফিকের চিটাগং। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান সংগ্রহ করে চিটাগং। জবাবে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রানে থামে ঢাকার ইনিংস।

ব্যাটিংয়ে নেমে চিটাগংয়ের আফগান ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ দ্রুতগতিতে রানের চাকা ঘোরাতে শুরু করেন। ১৫ বলে তিনটি বাউন্ডারি আর একটি ওভার বাউন্ডারিতে তিনি করেন ২১ রান। তিন নম্বরে নামা ইনফর্ম ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলি ২০ বলে ১৯ রান করে সাজঘরে ফেরেন। এরপর জুটি গড়েন আরেক ওপেনার ক্যামরুন দেলপোর্ট এবং দলপতি মুশফিক। ৪৬ বলে তারা স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ৭৯ রান।

শেষ ওভারের প্রথম বলে বাউন্ডারি সীমানায় ক্যাচ দিয়ে আউট হওয়ার আগে মুশফিক করেন ৪৩ রান। তার ২৪ বলের ইনিংসে ছিল চারটি চার আর দুটি ছক্কা। আন্দ্রে রাসেলের পরের বলেই বিদায় নেন ৭১ রান করা দেলপোর্ট। তার ৫৭ বলের ইনিংসে ছিল ৫টি চার আর ৪টি ছক্কার মার। রাসেল তার তৃতীয় বলে ফিরিয়ে দেন দাসুন শানাকাকে। হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এই ক্যারিবীয়ান। বিপিএলের এই মৌসুমে এটি তৃতীয় হ্যাটট্রিক। সিকান্দার রাজা ৬ আর মোসাদ্দেক হোসেন ১ রানে অপরাজিত থাকেন।

ঢাকার হয়ে সুনীল নারাইন দুই উইকেট নেন। এছাড়াও আন্দ্রে রাসেল নেন তিন উইকেট।

জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে ঢাকার শুরুটা ভালো হয়নি। ওপেনার সুনীল নারাইন কোনো রান না করেই বিদায় নেন। আরেক ওপেনার মিজানুর রহমান ১০ বলে করেন ১১ রান। তিন নম্বরে নামা রনি তালুকদার (৬) দলকে টানতে পারেননি। কাইরন পোলার্ড প্রথম বল মোকাবেলা করেই রানআউট হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন। তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে ব্যাট চালিয়ে খেলতে থাকেন দলপতি সাকিব আল হাসান। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন আন্দ্রে রাসেল।

রাসেল ২৩ বলে চারটি চার আর দুটি ছক্কায় ৩৯ রান করে বিদায় নেন। এরপর শুভাগত হোম ৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ৪২ বলে ইনিংস সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন সাকিব। ডায়নামাইটসের দলপতি ছয়টি বাউন্ডারিতে সাজান তার ইনিংস। অ্যান্ড্রু বির্চ ৭ ও মাহমুদুল হাসান ২ রান করেন।

চিটাগংয়ের হয়ে আবু জায়েদ রাহি তিন উইকেট নেন। এছাড়াও দাসুন শানাকা দুই, ক্যামেরুন দেলপোর্ট ও নাঈম হাসান ১টি করে উইকেট নেন।

খেলা শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ক্যামেরুন দেলপোর্টের হাতে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার তুলে দেন। এসময় বিসিবির সহসভাপতি ও নগরপিতা আ জ ম নাছির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।

জয়নিউজ/শহীদ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...