নিরাপদ খাদ্য আন্দোলনে নগরবাসীর সম্পৃক্ততা চাই: মেয়র

0

বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মকে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী ও কর্মক্ষম করে গড়ে তুলতে পুষ্টিকর ও নিরাপদ খাবার নিশ্চিতকরণে নিরাপদ খাদ্য আন্দোলনে সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) নগরের ডিসি হিল নজরুল স্কোয়ার জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবস-২০১৯ উপলক্ষে চসিক আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

মেয়র বলেন, অর্থনৈতিক, প্রযুক্তি ও সামাজিক উন্নয়নের বিভিন্ন সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল একটি সুখী, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়ে তোলার। বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একটি সুস্থ-সবল, মেধাবী ও কর্মক্ষম জাতি গড়ার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের অনেক সফলতা আছে। তার মধ্যে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন অন্যতম। কিন্তু এই খাদ্য হতে হবে অবশ্যই পুষ্টিকর ও নিরাপদ। তারই আলোকে বর্তমান সরকার নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ প্রণয়ন করেছে। স্বাস্থ্যসম্মত, মানসম্পন্ন ভেজাল ও দূষণমুক্ত নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিত করাই এই আইনের উদ্দেশ্য।

নিরাপদ খাদ্য কর্মসূচিকে একটি সামাজিক আন্দোলনে পরিণত কথা উল্লেখ করে নিরাপদ খাদ্য সম্পর্কে সচেতন করে তোলার জন্য নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে এলাকার জনসাধারণ ও কাউন্সিলদের সমন্বয়ে মাসব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেন মেয়র। এতে প্রতিটি ওয়ার্ডে সভা-সমাবেশ, ভিডিও প্রদর্শনী, সিম্পোসিয়াম, প্রচারপত্র বিলিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি রয়েছে।

কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রামের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এ সভায় ক্যাবের সভাপতি এস এম নাজের হোসাইন সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যে মধ্যে চসিক সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মফিদুল আলম, প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. জাকিয়া খাতুন, ভোক্তা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো. হাসানুজ্জামান, ক্যাব-এর বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল বাহার সাবেরী, চট্টগ্রাম মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এ এম তৌহিদুল ইসলাম, ক্যাব নেতা মোহাম্মদ আবদুল মান্নান, অজয় মিত্র শাংকু, মোহাম্মদ জানে আলম, শাহীন চৌধুরী, ফয়সল আদনান, হারুন গফুর ভূঁইয়া, আবু ইউনুছ, কে এম মহিরুজ্জামান, মো. আবু তাহের উপস্থিত ছিলেন।

জয়নিউজ/কাউছার/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...