কোয়েল পাখির প্রলোভনে শিশু ধর্ষণের অভিযোগ

0

লক্ষ্মীপুরে কোয়েল পাখির প্রলোভনে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে পাওয়া গেছে। ঘটনার ১২ দিন পর দায়ের করা হয়েছে মামলা। এতে আসামি করা হয়েছে ফজলে রাব্বি নামে ১৮ বছরের এক তরুণকে।

মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন ধর্ষিতা শিশুর মা। আসামি রাব্বি কুশাখালি ইউনিয়নের ছিলাদী এলাকার সাইফুল ইসলাম হারুনের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২৫ জানুয়ারি (শুক্রবার) দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ চিলাদী এলাকায় রাব্বি ওই শিশু শিক্ষার্থীকে কোয়েল পাখির বাসা থেকে বাচ্চা নিয়ে দেওয়ার কথা বলে ডেকে নেয়। পরে স্থানীয় রফিক মেম্বারের বাড়ির পার্শ্ববর্তী কালভার্টের নিচে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকার শুনে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে। শিশুটিকে প্রথমে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। তবে অবস্থার অবনতি হলে তাকে নোয়াখালীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়।

এদিকে অভিযুক্ত রাব্বির বড় বোন মাহিনুর বেগম জানান, তাদের প্রতিবেশী অন্যায়ভাবে তার ছোট ভাই রাব্বিকে ফাঁসাতে ৭ বছরের শিশুকে দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছে। এ বিষয়টি নিয়ে সালিশ বৈঠক ডেকেও তাদের নিকট টাকা চাওয়া হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

অপরদিকে ভিকটিমের বাবার অভিযোগ, অভিযুক্ত রাব্বির পরিবারের সঙ্গে আঁতাত করে স্থানীয় কয়েকজন বিষয়টি মীমাংসা করার আশ্বাস দিয়ে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তাদেরকে মামলা তুলে নেওয়াসহ নানা ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে।

কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নুরুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জয়নিউজকে বলেন, এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবারকে মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পরে তার কথামতো মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন।

দাসেরহাট পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মফিজ উদ্দিন বলেন, পাখির বাসা দেখানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় রাব্বিকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই রাব্বি পলাতক। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জয়নিউজ/আতোয়ার/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...