সোলার প্যানেলের ঘোষণায় এলো সাড়ে ৬ কোটি টাকার টিভি!

0

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি ঘোষণা দিয়েছিল তারা আনবে সোলার প্যানেল। কিন্তু শুল্ক গোয়েন্দাদের কাছে খবর ছিল অন্যরকম। খালাসের দিনেই শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর আটকে দেয় চালানটি। চলে চালানটির কায়িক পরীক্ষা। সোলার প্যানেল আনার ঘোষণা দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি এনেছে ৬ কোটি ৪২ লাখ টাকার টিভির চালান!

জানা যায়, ঢাকার আমদানিকারক মেসার্স মাল্টিমোড ১ হাজার ৫৮৩ পিস সোলার প্যানেল আনার ঘোষণা দেয়। কিন্তু তাঁরা এনেছে ১ হাজার ৫৯৬টি স্মার্ট টিভি।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম জয়নিউজকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৬ কোটি ৪২ লাখ টাকার পণ্যের চালান আটক করেছেন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক কার্যালয়ের সদস্যরা। ঢাকার আমদানিকারক মেসার্স মাল্টিমোড (বিন নম্বর: ০০১৪০৯৩৪৮) সোলার প্যানেল আনার ঘোষণা দিয়েছিল। তবে কায়িক পরীক্ষায় সোলার প্যানেলের স্থলে পাওয়া যায় বিভিন্ন কোম্পানির ১ হাজার ৫৯৬টি স্মার্ট টিভি। শুল্ক ফাঁকি দিতে প্রতিষ্ঠানটি এমন কাজ করেছে। চালানটির খালাস কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চালানটিতে উল্লেখ ছিল ১ হাজার ৫৮৩ পিস সোলার প্যানেল আনা হবে, যার সর্বমোট ওজন ২০ হাজার ৫১০ কেজি। বিপরীতে পাওয়া যায় ৩২ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া ডাব্লিউ৬০ডি মডেলের ৩৪৪টি স্মার্ট এইচডি টিভি, ৩২ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া আর৩০ই মডেলের ৫৩৬টি এলইডি টিভি, ৪০ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া ডাব্লিউ৬৫ডি মডেলের ৩৬৭টি স্মার্ট এইচডি টিভি, ৪০ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া আর৩৫ই মডেলের ২৭৭টি এইচডি টিভি, ৪৮ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া ডাব্লিউ৬৫ডি মডেলের ২৯টি স্মার্ট এইচডি টিভি, ৫৫ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া এক্স৭৫এফ মডেলের ৭টি ফোরকে ইউএইচডি টিভি, ৬৫ ইঞ্চি সনি ব্রাভিয়া মডেলের ১১টি এক্স৭৫এফ ফোরকে ইউএইচডি টিভি, ৬৫ ইঞ্চি স্যামসাং ৭ সিরিজের ২৩টি এমইউ ৭ হাজার ৫০০ মডেলের ফোরকে কার্ভড টিভি, ৬৫ ইঞ্চি স্যামসাং কিউই সিরিজের ২টি কিউই৬৫কিউ৭এফএনএটি মডেলের ফোরকে ইউএইচডি টিভি। সবমিলিয়ে চালানে ১ হাজার ৫৯৬টি স্মার্ট টিভি পাওয়া যায়।

চালানটি খালাসের দায়িত্বে নিয়োজিত সিএন্ডএফ এজেন্ট চট্টগ্রামের বার্ডস কার্গো লাইনার্স (এআইএন নম্বর ৩০১০৫৩২০৬)। চালানটির বিল অব এন্ট্রি নম্বর: ১৯৩৪৭২। ৩০ জানুয়ারি চালানটির বিল অব এন্ট্রি দাখিল করা হয়।

চালানটির শুল্কায়নযোগ্য মোট আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি ৩৫ লাখ ৪ হাজার ৮৫৩ টাকা এবং ফাঁকি দেওয়া শুল্ককরের আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি ৭ লাখ ৮৪ হাজার ২৫৯ টাকা (জরিমানা ব্যতীত)। শুল্ককরসহ চালানটির মোট আনুমানিক মূল্য দাঁড়ায় ৬ কোটি ৪২ লাখ ৮৯ হাজার ১১২ টাকা।

চালানটির ন্যায় নির্ণয়সহ ফাঁকি দেওয়া রাজস্ব আদায়ের জন্য চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে প্রেরণ করা হয়েছে।

জয়নিউজ/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...