৯৯৯-এ বাবার ফোন, পুলিশ দেখে পালাল বখাটে

0

‘৯৯৯’-এ ফোন করে বখাটেদের কাছ থেকে দুই ছাত্রীকে রক্ষা করেছেন বাবা। সীতাকুণ্ডের সলিমপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার টিএন্ডটি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে এ ঘটনা ঘটলেও বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেল পর্যন্ত কোন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ছাত্রীর মা।

এদিকে আবারও হামলার আশঙ্কায় ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে ছাত্রীর পরিবার। বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে পাওয়া যায়নি ছাত্রীর পরিবারের কাউকে।

ওই ছাত্রীর বাবা আনোয়ার হোসেন মুঠোফোনে জয়নিউজকে জানান, তিন মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে তিনি উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজারের পশ্চিমে টিএন্ডটি এলাকায় থাকতেন। তার বড় মেয়ে ফৌজদারহাট কেএম হাইস্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে, মেজ মেয়ে সপ্তম শ্রেণিতে ও ছোট মেয়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে।

আনোয়ার হোসেন বলেন, সাইফুল ইসলাম নামে এক বখাটে চারজন সহযোগী নিয়ে গত সোমবার রাতে আমার ঘরে ঢুকে বড় দুই মেয়েকে মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এতে আমার স্ত্রী বাধা দিতে গেলে তিন মেয়ে ও স্ত্রীকে পিটিয়ে আহত করে। খবর পেয়ে আমি ৯৯৯-এ ফোন করে পুলিশের সহযোগিতা চাই। এরপর কয়েকবার পুলিশ ঘটনাস্থলেও যায়। তবে পুলিশ আমার বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার পর লাঠিসোটা নিয়ে আবার হামলা চালায় তারা।

আবারও হামলার আশঙ্কায় অন্যত্র চলে যেতে বাধ্য হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলওয়ার হোসেন জয়নিউজকে বলেন, ঘটনাটি ধর্ষণের চেষ্টা নয়। ইভটিজিংয়ের ঘটনা নিয়ে বখাটেরা মেয়ের মাকে মারধর করেছে। লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বখাটেদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। বুধবার রাতে এ ঘটনায় একটি মামলা হবে বলেও জানান তিনি।

জয়নিউজ/সেকান্দর/রুবেল/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...