চিকিৎসকদের কেউ ছুটিতে, কেউ বিশ্রামে

0

রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক রয়েছেন ১০ জন। তবে দায়িত্ব পালন করেছেন ৫ জন। আবার এ ৫ জনের মধ্যে একজন রয়েছেন বিশ্রামে। কারণ তিনি আগের দিন নাইট ডিউটি করেছেন।

১৪ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) বেলা ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সরেজমিন রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঘুরে এ চিত্র পাওয়া যায়।

সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চিকিৎসাসেবা থেকে দূরে থাকা ৫ চিকিৎসকের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী ছুটিতে রয়েছেন। আবার সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে মেডিকেল লিভে আছেন ডা. শুভাশীষ বড়ুয়া। মাতৃত্বকালীন ছুটিতে রয়েছেন দুই নারী চিকিৎসক। আর অপর এক চিকিৎসক অনুপস্থিত রয়েছেন। অপরদিকে রাতে ডিউটি করায় বিশ্রাম নিচ্ছেন আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মোস্তাফা নুর মোরশেদ।

এদিকে সংবাদ সংগ্রহ করার সময় অসহযোগিতা করেন রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক জেবু নেচ্ছা কেয়া ও জরুরি বিভাগে দায়িত্ব পালনকারী ডা. প্রিয়া। তাঁরা প্রতিবেদকের আইডি কার্ড দেখতে চান এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজার কাছে ফোন করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রতিবেদককে ফোন করে বিষয়টি সুরাহা করেন।

সরেজমিন অবস্থানকালে উপজেলা কমপ্লেক্সের আউটডোরে দায়িত্ব পালন করা দিপক কুমার জানান, সকাল থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত আউটডোরে ১৮৭ জন রোগী চিকিৎসা নিতে এসেছেন।

তবে রাউজানের কেউটিয়া এলাকার শামশুল আলম অভিযোগ করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা না পেয়ে অনেক রোগীকে ফিরে যেতে হয়।

স্থানীয় কয়েকজনের অভিযোগ, ৫০ শয্যার এ হাাসপাতালে দায়িত্বরত চিকিৎসকের জন্য কোয়ার্টার রয়েছে। কিন্তু তাঁরা সবাই থাকেন চট্টগ্রাম নগরে। তাই ঠিক সময়ে অনেকেই হাসপাতালে আসতে পারেন না। আবার দায়িত্বরত চিকিৎসকের মধ্যে অনেকেই রাউজান ও চট্টগ্রাম শহরে ব্যক্তি প্রাইভেট হাসপাতালে বসেন। তাঁরা হাসপতালে এসে হাজিরা দিয়ে প্রাইভেট চিকিৎসা করতে চলে যান।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জয়নিউজকে বলেন, অমি তিনদিনের ছুটিতে রয়েছি। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অমিসহ দশ জন চিকিৎসক রয়েছেন। দুইজন মহিলা চিকিৎসক মাতৃত্ব ছুটিতে, একজন চিকিৎসক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এদিকে অফিসে আসেননি রাউজান উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের চিকিৎসক রাবেয়া বেগম ও ডা. সাহেদা আকতার। তবে তাঁদের অফিসকক্ষের দরজা খোলা ছিল।

ডা. রাবেয়া বেগম রাউজানের নোয়াপাড়া সূর্য সেন মাতৃসদনে রয়েছেন বলে প্রতিবেদককে জানালেন তাঁর অফিসের এক কর্মচারী। তবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা এক রোগীর অভিভাবক তৎক্ষণাৎ অভিযোগ করেন, ডা. রাবেয়া বেগমের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে আমি সূর্যসেন মাতৃসদনে রোগী নিয়ে যাওয়ার কথা বলি। কিন্তু তিনি আমাকে জানিয়েছেন, তিনি হাসপাতালে নেই, বাইরে আছেন।

জয়নিউজ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...