চবিতে বিভিন্ন ঘটনায় ১২ জন বহিষ্কার, ১ জনের ছাত্রত্ব বাতিল

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) বিভিন্ন সময়ে সংঘর্ষ, মারধর, ছিনতাই, প্রক্সি ও জালিয়াতির ঘটনায় ১২ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার, ২ জনের সনদ স্থগিত ও একজনের ছাত্রত্ব বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বোর্ড অব রেসিডেন্স, হেলথ অ্যান্ড ডিসিপ্লিন কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ৩টার দিকে নিজ কার্যালয়ে প্রক্টর অধ্যাপক আলী আজগর চৌধুরী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বহিষ্কার

২০১৮ সালের ৩ মার্চ সাউদার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি পরীক্ষায় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিবু দাশগুপ্তের হয়ে প্রক্সি দেওয়ায় শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সৈয়দ ফাহিম জাফরীকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

২০১৮ সালের ১৪ এপ্রিল চট্টগ্রাম শহর থেকে পুলিশ কর্তৃক মানবসম্পদ ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আশফাকসহ মোট ৮ জন আটক হন। বিশ্ববিদ্যালয় আশফাককে শোকজ নোটিস পাঠালেও তিনি কোন জবাব না দেওয়ায় তাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

২০১৮ সালের ২৮ অক্টোবর চবির ডি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার জন্য আইন বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের মোশাররফ হোসেন শিকদারকে এক বছর, বিভিন্ন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সের অপব্যবহার ও মেডিকেল সেন্টারের স্টাফদের হুমকির অভিযোগে ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের এইচ এম হাসানুজ্জামানকে এক বছর, একটি আবাসিক হলের দুই শিক্ষার্থীর টাকা, মোবাইল ও ল্যাপটপ জোরপূর্বক কেড়ে নেওয়ায় রসায়ন বিভাগের ২০১২-১৪ শিক্ষাবর্ষের মিজানুর রহমান ফকিরকে এক বছর, এবছর ১ ফেব্রুয়ারি এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান এমদাদুল হককে মারধর ও রুম থেকে বিতাড়নের ঘটনায় লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের দ্বীপায়ন দেব, সাব্বিরুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অর্ণব বড়ুয়া ও আরবি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জুবায়ের আহমেদকে ছয় মাস, ৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারি ক্যাম্পাসে ও শহরে সংঘর্ষের ঘটনায় উস্কানি ও প্ররোচনায় নৃবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জিয়াউল হক মজুমদারকে, পরিসংখ্যান বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ইমরান নাজিব ইমন, বন ও পরিবেশবিদ্যা ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী রবিউল হাসান ও নুসরাত জাহানকে মারধর, ছিনতাইয়ের অভিযোগে অর্থনীতি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মামুনুর রশিদকে ছয় মাস এবং ইতিহাস বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সাব্বির হোসেনকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। সাব্বির এর আগেও সাংবাদিক মিনহাজুল ইসলাম তুহিনকে মারধরের ঘটনায় জড়িত ছিল।

সনদ স্থগিত

ডি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সির ঘটনায় স্নাতকোত্তরের দুই শিক্ষার্থীর সনদ স্থগিত করা হয়েছে। তারা হলেন বাংলা বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের জামশেদুল কবির ও ইতিহাস বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের আনওয়ার হোসেন।

ছাত্রত্ব বাতিল

২০১৮ সালের ৪ নভেম্বর আইন বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের বাৎসরিক পরীক্ষার সময় জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি হওয়া মাইন নেওয়াজ নামে এক শিক্ষার্থী ধরা পড়ে। সোমবারের সভায় স্থায়ীভাবে তার ছাত্রত্ব বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এসব বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক আলী আজগর চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, বিভিন্ন কারণে এসব ছাত্রদের বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃতদের ক্যাম্পাসে অবস্থান অবৈধ। সন্দেহ হলে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তারও করতে পারে।

জয়নিউজ/নবাব/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...