নির্বাচন মোটামুটি শান্তিপূর্ণ হয়েছে: ইসি সচিব

0

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে ২৮টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। কারচুপিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে প্রিজাইডিং অফিসারসহ সাতজনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এরপরও এই নির্বাচনে মোটামুটি শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে বলে মনে করছে তারা।

রোববার (১০ মার্চ) বিকেলে প্রথম ধাপের ভোট শেষে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এসব কথা জানান।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, চার বিভাগের ১২ জেলার ৭৮ উপজেলায় নির্বাচন হয়েছে। এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে যে তথ্য এসেছে, তাতে মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ হাজার ৮৪৭টি কেন্দ্রে ভোট হয়েছে। তার মধ্যে বিভিন্ন অনিয়মের কারণে ২৮টি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ বন্ধ করা হয়েছে। এই কেন্দ্রগুলোতে পরবর্তী সময়ে ভোট গ্রহণ হবে। অন্য কেন্দ্রগুলোতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে।

ইসি সচিব বলেন, প্রথম ধাপের যে উপজেলা নির্বাচন হয়েছে তাতে নির্বাচন কমিশন মনে করে, মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে।

তিনি বলেন, কত শতাংশ ভোটার উপস্থিত ছিল, সেই তথ্য আমরা এখন পর্যন্ত পাইনি। তবে আমরা যা জেনেছি, তাতে ভোটার উপস্থিতি সন্তোষজনক। তবে এখন পর্যন্ত ভোটার উপস্থিতির হার আমাদের কাছে আসেনি।

সব রাজনৈতিক দল অংশ নিলে ভোটার উপস্থিতি বাড়ত কি না-এমন প্রশ্নে ইসি সচিব বলেন, এটা স্বাভাবিক ব্যাপার, যখন সব রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করে তখন ভোটার উপস্থিতি বাড়ে।

নির্বাচনী অনিয়মে শাস্তির বিষয়ে সচিব বলেন, অনিয়মের অভিযোগে সিরাজগঞ্জে দুজন প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া অনিয়মের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার দায়ে ১০ জনের বেশি ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তবে ইসির যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মদ খান বলেন, অনিয়মের অভিযোগে সিরাজগঞ্জের একজন প্রিজাইডিং অফিসার ও দুজন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নাটোরের একজন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, লালমনিরহাটের পাটগ্রামে একজন সহকারী প্রিজাইডিং ও একজন পোলিং এজেন্টকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া সুনামগঞ্জের দুজন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদের সবার নামে মামলা করেছে ইসি। এছাড়াও রাজশাহী, নাটোর ও কুড়িগ্রামে ১০ জন দুর্বৃত্তকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জয়নিউজ/অভিজিত/শহীদ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...