যৌতুক না পেয়ে চুল কেটে মারধর গৃহবধূকে

0

লক্ষ্মীপুরে যৌতুকের টাকা না পেয়ে এক গৃহবধূর চুল কেটে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে স্বামী, শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে।

রোববার (১৭ মার্চ) রাতে লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের বাঞ্চানগর এলাকার গনু হাওলাদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সোমবার (১৮ মার্চ) দুপুরে নির্যাতিত গৃহবধূ বিচার চেয়ে স্বামী আরিফ হোসেন রক্সি, শাশুড়ি লাকী বেগম ও ননদ স্বর্না আক্তারের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ঘটনার পরপরই স্বামী আরিফ হোসেন রক্সিসহ অন্যরা গা ঢাকা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অভিযোগকারীর মা লায়লা বেগমসহ পরিবারের সদস্যরা জয়নিউজকে জানান, ২০১৬ সালে ১০ নভেম্বর লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের বাঞ্ছানগর এলাকার আবু সিদ্দিক বকুলের ছেলে আরিফ হোসেন রকসির সঙ্গে চার লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে হয় সদর উপজেলার ইয়ারপুল পালের হাট এলাকার নুর নবীর মেয়ের সঙ্গে। বিয়ের পর আরিফ হোসেনকে এক লাখ টাকা যৌতুক হিসেবে দেওয়া হয়। এরপর আবারও যৌতুক দেওয়ার জন্য মারধর করা হয় তাকে। ওই গৃহবধূ নির্যাতন থেকে বাঁচতে কিছুদিন আগে নিজের স্বর্ণের গহনা আরিফ হোসেনের হাতে তুলে দেন। যার বাজারমূল্য লক্ষাধিক টাকা।

এব্যাপারে রোববার সকালে স্থানীয় লোকজনকে বিষয়টি জানানো হলে ক্ষিপ্ত হয়ে রাতে ওই গৃহবধূর হাত-পা বেঁধে কাঁচি দিয়ে মাথার চুল কেটে দেন স্বামী আরিফ হোসেন রকসি, শাশুড়ি ও ননদ। এসময় তাকে মারধর করলে অচেতন হয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধূ জানান, রাতে এক লাখ টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী আরিফ হোসেনসহ শাশুড়ি ও ননদ তাকে বেঁধে রেখে চুল কেটে দেয়। এসময় বাধা দিতে গিয়ে তাদের মারধরে রাতেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি।

পরে স্বামী, শাশুড়ি ও ননদের বিচার চেয়ে তিনি পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেছেন বলে জানান।

সদর থানার ওসি লোকমান হোসেন জয়নিউজকে জানান, বিষয়টি অত্যন্ত নির্মম। এ বিষয়ে মামলা হলে আইনি  ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জয়নিউজ/আতোয়ার/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...