এক উইকেট দূরে ভারতের ট্রেন্ট ব্রিজ

0

৫২১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড যখন শেষ ইউকেট পরেছে তখন তাদের রান ছিল ২৯২। আদিল রশিদের সঙ্গে জেমস অ্যান্ডারসন যখন জুটি বাঁধেন তখনও খেলা বাকি ৫.৪ ওভার। প্রবল চাপের মুখে সেই সময়টা নির্বিঘেœ কাটিয়ে দেয় ইংল্যান্ডের দশম উইকেট জুটি। জয় পিছিয়ে গেল একদিন। তাতে ম্যাচ গড়ায় পঞ্চম দিনে। তবে জাসপ্রিত বুমরাহর দারুণ বোলিংয়ে ট্রেন্ট ব্রিজ টেস্টে জেতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে ভারত।

তৃতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ৩১১ রান। রশিদ ৩০ ও অ্যান্ডারসন ৮ রানে ব্যাট করছেন।

জয়ের জন্য পঞ্চম ও শেষ দিনে ভারতের চাই ১ উইকেট। ৫২১ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করা ইংল্যান্ডের চাই আরও ২১০ রান। ম্যাচ বাঁচাতে কাটিয়ে দিতে হবে পুরো একটি দিন।

বিনা উইকেটে ২৩ রান নিয়ে মঙ্গলবারের খেলা শুরু করে ইংল্যান্ড। শুরুতেই দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান কিটন জেনিংস ও অ্যালেস্টার কুককে বিদায় করে দেন ইশান্ত শর্মা। থিতু হয়ে বিদায় নেন জো রুট ও অলিভার পোপ।

৬২ রানে প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে হারানো ইংল্যান্ড প্রতিরোধ গড়ে জস বাটলার ও বেন স্টোকসের ব্যাটে। দুই জনে গড়েন ১৬৯ রানের জুটি। সেঞ্চুরি করা বাটলারকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ইংলিশদের প্রতিরোধ ভাঙেন বুমরাহ।

১৭৬ বলে ২১ চারে ১০৬ রান করে ফিরেন বাটলার। আঙুলে চোট নিয়ে খেলতে নামা জনি বেয়ারস্টো পান গোল্ডেন ডাকের স্বাদ। লর্ডস টেস্টে দারুণ ব্যাটিং করা ক্রিস ওকসকেও দ্রুত ফিরিয়ে দেন বুমরাহ।

৬ চারে ৬২ রান করা স্টোকসকের বিদায় করেন প্রথম ইনিংসের নায়ক হার্দিক পান্ডিয়া। ১০ রানের মধ্যে ৪ উইকেট নিয়ে চার দিনেই টেস্ট জিতে নেওয়ার আশা জাগায় ভারত।

তবে স্টুয়ার্ট ব্রডের সঙ্গে নবম উইকেটে ৫০ রানের দারুণ জুটিতে অতিথিদের হতাশ করেন রশিদ। ব্রডকে স্লিপে লোকেশ রাহুলের ক্যাচে পরিণত করে ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট নেন বুমরাহ। চার দিনে ম্যাচ শেষ করার আশা আবার উজ্জ্বল হয় অতিথিদের।

তবে দশম উইকেট জুটি এদিন আর ভাঙতে পারেনি ভারত। রশিদ-অ্যান্ডারসনকে বিচ্ছিন্ন করতে বিরাট কোহলিদের হাতে আছে পুরো একটি দিন। স্কোর বোর্ডেও আছে যথেষ্ট রান।

৮৫ রানে ৫ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার বুমরাহ। ইশান্ত ২ উইকেট নেন ৭০ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ১ম ইনিংস: ৩২৯

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ১৬১

ভারত ২য় ইনিংস: ৩৫২/৭ ডিক্লে.

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৫২১) ১০২ ওভারে ৩১১/৯ (কুক ১৭, জেনিংস ১৩, রুট ১৩, পোপ ১৬, স্টোকস ৬২, বাটলার ১০৬, বেয়ারস্টো ০, ওকস ৪, রশিদ ৩০*, ব্রড ২০, অ্যান্ডারসন ৮*; বুমরাহ ৫/৮৫, ইশান্ত ২/৭০, অশ্বিন ০/৪০, শামি ১/৭৬, পান্ডিয়া ১/২২)

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...