জেব্রাক্রসিংয়ে শরীর গড়িয়ে সড়কে ‘হত্যার’ প্রতিবাদ

0

ছেলেটির সারা শরীরজুড়ে কালো কালিতে লেখা ছিল অনেকগুলো স্লোগান। সেই স্লোগানের প্রতিটি শব্দে ঝরে পড়ছিল সড়কে মৃত্যুর মিছিলে প্রশাসনের প্রতি তীব্র ক্ষোভ। একপর্যায়ে ফুটপাত থেকে নেমে সে শুয়ে পড়ে জেব্রাক্রসিংয়ে। তারপর সেই উদোম গায়েই গড়িয়ে পার হয় পিচঢালা জেব্রাক্রসিং!

নিরাপদ সড়কের দাবিতে জুয়েল চাকমার ব্যতিক্রমী এই প্রতিবাদ দেখেছে চট্টগ্রাম। সড়কে ‘হত্যার’ প্রতিবাদে ঢাকা যখন উত্তাল, তখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থীরা নিজের শরীরে স্লোগান লিখে, ডুগডুগি বাজিয়ে, পারফরমেন্স আর্টের মাধ্যমে আন্দোলনে তাদের সংহতি প্রকাশ করেন।

বুধবার (২০ মার্চ) বিকেল সাড়ে চারটায় নগরের প্রেসক্লাবের সামনে এই আন্দোলন কর্মসূচি পালন করেন ছাত্ররা।

চারুকলার ছাত্রদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে এসময় রাস্তার দুই পাশে অনেকেই দাঁড়িয়ে যান।

ব্যতিক্রমী এই আন্দোলন দেখে স্কুলশিক্ষক তারেক নন্দী জয়নিউজকে বলেন, ছাত্রদের এই আন্দোলন যৌক্তিক। আজ সড়কে কেউ নিরাপদ নয়। লাইসেন্সবিহীন গাড়ি আর অদক্ষ ড্রাইভারদের হাতে গাড়ির স্টিয়ারিং তুলে দিচ্ছেন মালিকরা। সড়কে হত্যা বন্ধে প্রশাসনের আরো বেশি আন্তরিক হওয়া উচিত। সবাই সচেতন হলে আমরা সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করতে পারবো।

আন্দোলনের উদ্যোক্তা সৌরভ ধর ও নাজমুল হোসেন নয়ন জয়নিউজকে বলেন, প্ল্যাকার্ডে লিখে, গায়ে এঁকে, ডুগডুগি বাজিয়ে, মুখে টেপ দিয়ে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সড়কে হত্যার প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আর আমাদের বন্ধু জুয়েল চাকমা তার সারা গায়ে এঁকে পারফরমেন্স আর্ট করছেন।

ডুগডুগি কেন বাজাচ্ছেন এমন প্রশ্নে আন্দোলনকারীরা জয়নিউজকে বলেন, এই ডুগডুগি বাজিয়ে শব্দ তৈরি করে আমরা সবার ঘুম ভাঙাতে চাই। সড়কে আর কত প্রাণ গেলে আমাদের হুঁশ ফিরবে?

আগামী দিনগুলোতেও এ ধরনের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে জানান আয়োজকরা।

অভিনব পন্থায় আন্দোলন

আন্দোলনের এক নতুন রুপ দেখল চট্টগ্রাম। সড়কে হত্যার প্রতিবাদে ঢাকা যখন উত্তাল তখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থীরা গায়ে লিখে, ডুগডুগি বাজিয়ে, মুখে টেপ লাগিয়ে, পারফরমেন্স আর্ট এর মাধ্যমে আন্দোলনে তাদের সংহতি প্রকাশ করেছেন।বুধবার (২০ মার্চ) বিকাল সাড়ে চারটায় নগরের প্রেসক্লাবের সামনে এই আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে ছাত্ররা।

Posted by Joynewsbd.com on Wednesday, 20 March 2019

জয়নিউজ/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...