শীর্ষ ওলামাদের জন্য দেহরক্ষী চান আল্লামা শফী

0

বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর শীর্ষস্থানীয় ওলামাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য স্ব-স্ব দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। শনিবার (২৩ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে হেফাজত আমির বলেন, সারা পৃথিবীতে আজ মুসলমানরা নির্যাতন ও নিপীড়নের শিকার। বড় সংকটময় পরিস্থিতিতে তারা জীবনযাপন করছেন। পৃথিবীর প্রায় সবক’টি মুসলিম দেশ শত্রুদের দ্বারা আক্রান্ত। পাশ্চাত্যের অপসংস্কৃতির কালো থাবা মুসলিম উম্মাহকে পর্যুদস্ত করে চলেছে। এমন সংকটময় মুহূর্তেও শীর্ষস্থানীয় ওলামায়ে কেরাম দিকহারা উম্মাহর পথপ্রদর্শনে নিয়োজিত আছেন। ফলে মুসলিম উম্মাহ এখনও সত্য ও সঠিক পথের ওপর পরিচালিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, কিন্তু ইহুদি-খ্রিস্টান এবং শিয়া সম্প্রদায় মুসলিম উম্মাহকে নেতৃত্বশূন্য করে দেওয়ার লক্ষ্যে শীর্ষস্থানীয় ওলামায়ে কেরামদের হত্যার টার্গেট নিয়েছে। এই অপচেষ্টায় যদি তারা সফল হয়ে যায়, তাহলে মুসলিম উম্মাহ সহজেই দিক হারিয়ে ফেলবে। তাই উম্মাহর রাহবারদের দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে সন্ত্রাসীরা।

তিনি আরও বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার জুমার সময় পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় আলেম মুফতি মুহাম্মদ তাকি উসমানির ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি এবং তার স্ত্রী সুস্থ আছেন। কিন্তু দেহরক্ষী শাহাদাতবরণ করেছেন এবং দু’জন আহত হয়েছেন। আমি শহীদদের মাগফেরাত এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।

এমন জঘন্য সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড আগামীতে আরও জোরদার হতে পারে এমনটা ধারণা করে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে এমনটা হবে না- তা শতভাগ নিশ্চিত করে বলা যায় না। তাই শীর্ষস্থানীয় ওলামায়ে কেরামের নিরাপত্তার লক্ষ্যে দেহরক্ষী রাখা জরুরি। কারণ তারা দেশের অমূল্য সম্পদ এবং উম্মাহর পথপ্রদর্শক। কাজেই দেশের শীর্ষস্থানীয় ওলামায়ে কেরামের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

এদিকে প্রখ্যাত মুসলিম স্কলার ও পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি বিশ্বখ্যাত আলেম আল্লামা তাকি উসমানীর ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনিও শনিবার সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বিবৃতিতে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, তাকি উসমানী বর্তমান বিশ্বের একজন প্রখ্যাত ইসলামী আইন বিশেষজ্ঞ ও মুহাদ্দিস৷ হত্যার উদ্দেশে সন্ত্রাসীরা মুফতি তাকি উসমানীর ওপর এভাবে হামলা চালিয়েছে। আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীরা অঘোষিতভাবে পুরো বিশ্বে মুসলমানদের ওপর আক্রমণ শুরু করেছে। নিউজিল্যান্ডের ঘটনার এক সপ্তাহ না পেরোতেই তারা আবারও শীর্ষ একজন আলেমের ওপর হামলা চালিয়েছে। তাই বিশ্ব মুসলিম নেতৃবৃন্দ ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া সময়ের দাবি।

এছাড়া বিবৃতিতে হামলায় নিহতদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে তাদের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা এবং মুফতি তাকি উসমানীর সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তার ওপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে পাকিস্তান সরকারের কাছে দাবি জানান আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

জয়নিউজ/তালেব/জুলফিকার

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...