৯ গুণীকে চসিকের স্বাধীনতা পদক প্রদান

0

জাতীয় পর্যায়ে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে বিরল অবদান রাখার জন্য চট্টগ্রামের নয়জন গুণী ব্যক্তিকে স্বাধীনতা স্মারক সম্মাননা পদক প্রদান করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) বিকালে নগরের থিয়েটার ইনস্টিটিউট হলে নগরপিতা আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পদক তুলে দেন।

পদকপ্রাপ্তরা হলেন, স্বাধীনতা আন্দোলনে অধ্যাপক এস এম আবু তাহের রিজভী (মরণোত্তর), শিক্ষা ক্ষেত্রে মোহাম্মদ মনজুর আলম, চিকিৎসায় ডাক্তার সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভাণ্ডারী, ক্রীড়ায় মীর্জা সালমান ইস্পাহানি, সমাজসেবায় গোলাম মোস্তফা কাঞ্চন, সংগীতে অশোক সেনগুপ্ত (মরণোত্তর), সাংস্কৃতিক সংগঠক রণজিৎ রক্ষিত (মরণোত্তর), সাংবাদিকতায় আবু তাহের মুহাম্মদ, মুক্তিযুদ্ধে আবদুল কাদের মাস্টার (মরণোত্তর)।

অধ্যাপক এস এম আবু তাহের রিজভীর পক্ষে তার জামাতা শামসুর রহমান, মোহাম্মদ মনজুর আলমের পক্ষে তার ছেলে সাইফুল আলম, ডাক্তার সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভান্ডারীর পক্ষে ডাক্তার শাহাজাদা সৈয়দ হোসেন, মীর্জা সালমান ইস্পাহানির পক্ষে মিনহাজ উদ্দিন আহমদ, অশোক সেনগুপ্তের পক্ষে তার স্ত্রী রত্না সেন, আবদুল কাদের মাস্টার ও রণজিৎ রক্ষিতের পক্ষে তাদের প্রতিনিধি এবং গোলাম মোস্তাফা কাঞ্চন ও আবু তাহের মুহাম্মদ নিজেই পদক গ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস বাঙালির ঐতিহাসিক ও গৌরবোজ্জল গুরুত্বপূর্ণ দিবস। স্বাধীনতার ৪৯ বছর পেরিয়ে বাংলাদেশ একটি শক্ত ভিতের উপর দাঁড়ালেও যে আশা আকাঙ্ক্ষা নিয়ে এদেশের মানুষ স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল, সেই আশা আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে আরও বহুপথ পাড়ি দিতে হবে। সেই আশা-আকাঙক্ষার পথ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নে সেই ক্ষুধা -দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়া।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ মুক্তিযুদ্ধে চেতনায় পরিচালিত হচ্ছে। দেশের উন্নয়ন বিশ্ববাসীর কাছে রোল মডেল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের নেতৃবৃন্দের মধ্যে অন্যতম একজন। তার জনপ্রিয়তা শুধু দেশে নয়, সারা বিশ্বে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উচ্চ প্রবৃদ্ধি, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে ওঠে এসেছে, দারিদ্র্যের হার কমিয়ে আনা, নারীর ক্ষমতায়নসহ নানা সূচকে অগ্রগতির পর এখন রূপকল্প ২০৪১ নির্ধারণ করেছে উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।

সিটি মেয়র আরো বলেন, সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে প্রতিটি দপ্তরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রীর ছবি টাঙানো বাধ্যতামূলক। তবে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু শ্লোগানটি সরকারি,বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে টাঙানো হলে আমাদের স্বাধীনতা অর্থবহ হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামসুদ্দোহা।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী এবং পদক গ্রহণ করে অনুভূতি প্রকাশ করেন রাজনীতিবিদ গোলাম মোস্তফা কাঞ্চন, সাংবাদিক আবু তাহের মুহাম্মদ, আবদুল হালিম দোভাষ, মিনহাজ উদ্দিন আহমদ, ডাক্তার শাহজাদা সৈয়দ হোসেন, সাইফুল আলম ও শামসুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

পরে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আয়োজিত চিত্রাংকন, রচনা, উপস্থিত বক্তৃতা, আবৃত্তি, লোকসংগীত ও দেশের গান প্রতিযোগিতায়  বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন সিটি মেয়র।

জয়নিউজ/রুবেল/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...