ইরফানের রেকর্ডের দিনেও দলের হার

0

অবিশ্বাস্য এক বোলিং ফিগার (৪-৩-১-২!) নিয়েও দলকে জিতাতে পারলেন না বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসের বোলার মোহাম্মদ ইরফান। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের বার্বাডোজকে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহ দল সেন্ট কিটস। আর এই ম্যাচে দারুণ এক কীর্তি গড়লেন পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ ইরফান।

শনিবার (২৫ আগস্ট) রাতে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টের বিপক্ষে বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসের হয়ে ক্রিকেট ইতিহাসে বোলিংয়ে এত কম রান দেয়ার রেকর্ডটি তিনি গড়েন।

ম্যাচে নিজের বোলিংয়ের শুরুতে ক্রিস গেইলের উইকেটটা তুলে নিয়ে সেরা চমকটাই দেখিয়েছেন এই পেসার।আর দ্বিতীয় ওভারে আরেক ওপেনার ইভিন লুইসকেও পাঠিয়েছেন সাজঘরে। প্রথম দুই ওভারের পর তৃতীয় ওভারেও কোনো রান দেননি তিনি। তবে শেষ ওভারের শেষ বলে সিঙ্গেলটা না হলে একমাত্র রানটাও খরচ হতো না ইরফানের। সবমিলিয়ে চার ওভার বোলিংয়ে মাত্র ১ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ২টি উইকেট। যেখানে তার চার ওভার বোলিংয়ে ২৩টিই ছিল ডট বল। ম্যাচে তার বোলিং ফিগার দাঁড়িয়েছে ৪-৩-১-২!

তবে ইরফানের এমন দারুণ বোলিংয়েও ম্যাচ জিততে পারেনি বার্বাডোজ। তবে এদিন ম্যাচসেরার পুরস্কারটা এসেছে পাকিস্তানি এই পেসারের হাতেই। দল জিতলেও এই ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং এ কোন অবদান ছিলনা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের।

এর আগে ক্রিকেটের টি-২০ ফরম্যাটে এই রেকর্ডের মালিক ছিলেন দুজন। দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিস মরিস ও শ্রীলঙ্কার শানাকা ওয়েলেগেদারা ছিলেন এই রেকর্ডের মালিক। দুজনই ৪ ওভার শেষে খরচ করেন মাত্র ২ রান। তাদের দুজনকে পেছনে ফেলে রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন পাকিস্তানের এই ক্রিকেটের।

আর বাংলাদেশের হয়ে এমন একটি রেকর্ড আছে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। ২০১৩ সালের ৩ আগস্ট রেড স্টিলের বিপক্ষে বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসের হয়ে ৪ ওভারে মাত্র ৬ রান দিয়ে ৬টি উইকেট তুলে নিয়েছিলেন সাকিব। তবে সেই ম্যাচে ১টি ওভার মেইডেন পেয়েছিলেন বাংলাদেশ সেরা অলরাউন্ডার।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...