প্রশ্নপত্র ফাঁস, দাওরায়ে হাদীসের পরীক্ষা বাতিল

0

সনদের সরকারি স্বীকৃতি পাওয়ার পর প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হওয়া দাওরায়ে হাদীসের (তাকমিল জামাত) পরীক্ষা নিয়ে হোঁচট খেল কওমী মাদ্রাসা নিয়ন্ত্রক সংস্থা আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ। কওমী মাদ্রাসাসমূহের নিয়ন্ত্রক সংস্থা হাইয়াতুল উলইয়ার অধীনে চলমান দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছে।

ফলে সংস্থাটি অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষাগুলো স্থগিত এবং গৃহীত পরীক্ষাগুলো বাতিল করেছে। পরীক্ষা বাতিলের বিষয়টি হাইয়াতুল উলইয়ার একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ৭টায় ঢাকার মতিঝিলে সংস্থাটির কার্যালয়ে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কো চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে এক জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠকে দাওরায়ে হাদিসের প্রশ্নপত্র ফাঁস বিষয়ে আলোচনা হয় এবং বৈঠকের শুরুতেই নেতৃবৃন্দ আগের সব পরীক্ষা বাতিল এবং পরের পরীক্ষাগুলো স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয় বলে এ প্রতিবেদককে মুঠোফোনে নিশ্চিত করেন হাইয়াতুল উলইয়ার সদস্য মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া।

তিনি জানান, পরীক্ষার নতুন তারিখ নির্ধারণ, প্রশ্নফাঁস রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা চলছে। শিগগিরই তারিখ ঘোষণা করা হবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, মুফতি রুহুল আমিন, মুফতি আরশাদ রাহমানী, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা শামসুদ্দিন জিয়া, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মুফতি মোহাম্মদ আলী ও মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস প্রমুখ ।

জানা গেছে, এবার আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অধীনে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দেশের ৬টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মোট ২৬ হাজার ৭২১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। গত ৮ এপ্রিল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল ১৮ এপ্রিল।

জয়নিউজ/তালেব/আরসি
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...