বাস দুর্ঘটনা : দুই জেলায় নিহত ৫

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও নড়াইলে পৃথক দুই বাস দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত হয়েছেন।

জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় এনা পরিবহনের একটি বাস খাদে পড়ে তিনজন নিহত হয়েছেন। বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বৈশ্বামুড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন নারী ও এক শিশু রয়েছে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় বাসের অন্তত ২০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হোসেন সরকার দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুপুরে সিলেটগামী এনা পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪৭৪৫৬) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বৈশ্বামুড়া এলাকায় মহাসড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন মারা যান। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

এদিকে নরসিংদীর শিবপুরে এনা পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসের চাপায় দুই মটরসাইকেল আরোহীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের আমতলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- আলাউদ্দিনের ছেলে মেহেদী হাসান (২৫) ও কফিল উদ্দিনের ছেলে রোমান (২৪) এ ঘটনায় নিহত হয়েছেন। তারা কাপাসিয়া এলাকার খিড়াটি গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, এনা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-০৭০৪) ঢাকা থেকে সিলেট যাচ্ছিল। গাড়িটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার আমতলা নামক স্থানে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলের চালক মারা যান। আহত অবস্থায় অপর মোটরসাইকেল আরোহীকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ঘটনার পরপরই উত্তেজিত জনতা সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে বাস ভাঙচুরের চেষ্টা করেন। পরে সৃষ্টিগড় থেকে এনা পরিবহনের বাসটি আটক করেছে হাইওয়ে পুলিশ।

ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান বলেন, এনা পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটি অপর একটি গাড়িকে ওভারটেক করার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়।

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...