মেলার শত কোলাহলে বাঁশির ভিন্ন সুর (ভিডিও)

0

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে চলছে দেশের সবচেয়ে বড় বৈশাখী মেলা। ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলীখেলা উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও বসেছে এই মেলার আসর। তিনদিনের এই মেলায় হাজারো পদের পণ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হয়েছেন দোকানিরা।

বরাবরের মতো এবারের মেলায়ও বড় আকর্ষণ হরেকরকম বাঁশি। লালদিঘীর পাড়ে হাজারো মানুষের কোলাহলে বাঁশিতে ফুঁ দিয়ে চলছে ক্রেতা আকর্ষণের প্রাণান্ত চেষ্টা।

মেলায় ঢাকা থেকে বাঁশি নিয়ে এসেছেন মো. রোকন আহমদ। বেচাকেনা যাই হোক, বিগত ২০ বছর ধরে তিনি চট্টগ্রামের এই মেলায় আসেন প্রাণের তাগিদে।

চাঁদপুরে জন্ম নেওয়া রোকন প্রথম বাঁশি বাজানো আর বানানো শেখেন তার বাবার কাছে। পরে তালিম নিয়েছেন দেশসেরা বাঁশি বাজিয়ে গাজী আব্দুল হাকিম ও মুনিরুজ্জামানের কাছ থেকে।

বাঁশি বিক্রি করাটা তার পেশা আর বাজানোটা তার নেশা। জয়নিউজের সঙ্গে আলাপচারিতায় তিনি বলেন, ছোটবেলা থেকেই আমার বাঁশির প্রতি ছিল আলাদা ভালোলাগা। বংশপরম্পরায় এখন নিজেই বানাই বাঁশি।

শিল্পের অন্যতম মাধ্যম বাঁশির প্রতি মানুষের আগ্রহ কমে যাওয়াটা তাকে পোড়ায় বলে জানান তিনি।

বাঁশি শিখতে যে শ্রম আর ধৈর্য দরকার তা এখন অনেক শিল্পীর কাছে নেই, তাই এই শিল্পে অগ্রগতি কম বলে মন্তব্য করেন তিনি। রোকন আহমদ বলেন, তার বানানো বাঁশি দিয়ে বড় বড় শিল্পীরা দেশের বিভিন্ন মঞ্চ মাতাচ্ছেন। অনলাইনের মাধ্যমে বিদেশেও তিনি বাঁশি বিক্রি করেন বলে জানান।

এবারের বৈশাখী মেলায় বাঁশি বেশ ভালোই বিক্রি হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, তার দোকানে সর্বোচ্চ সাড়ে তিন হাজার থেকে সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা দামের ক্ল্যাসিকালি টিউনিং করা বাঁশি আছে। এছাড়াও সাধারণ মানের ২০ টাকা দামের বাঁশিও বেশ ভালোই বিক্রি হচ্ছে।

জয়নিউজ/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...