আইএস কি সত্যিই আসছে? নাকি ভুল সাংবাদিকতায় ছড়াল আতঙ্ক!

0

শনিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুর থেকে বাংলাদেশে সৃষ্টি হয়েছে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আতঙ্ক! বিশেষ করে বাংলাদেশের অনলাইন সাংবাদিকতায় একটি আতঙ্ক ও উদ্বেগের খবর ছড়িয়েছে যে, আইএস-এর টার্গেট এখন পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ। দুপুর একটার পর বাংলাদেশের প্রায় সবকটি গণমাধ্যমের অনলাইন সংস্করণে এ খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে জয়নিউজের অনুসন্ধান বলছে ভিন্ন কথা।

বাংলাদেশের পাঠকরা শনিবার দুপুর একটার পর প্রথম শ্রেণীর একটি দৈনিকের অনলাইন সংস্করণ থেকে জানতে পারেন, বৃহস্পতিবার জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলায় একটি পোস্টার প্রকাশ করেছে। আইএস-এর মদদপুষ্ট একটি টেলিগ্রাম চ্যানেলে পোস্টারটি প্রকাশ করা হয়। ওই পোস্টারে লেখা ছিল- ‘শীঘ্রই আসছি, ইনশাল্লাহ’।

 এই সংবাদ প্রকাশের পরপরই দেশজুড়ে শুরু হয় আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী জঙ্গিগোষ্ঠি আইএস আতঙ্ক। টনক নড়ে ওঠে দুই বাংলার সরকার ও দায়িত্বশীল মহলে। বিশেষ করে, একদিন আগে (২৬ এপ্রিল) শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের মুখে ‘জঙ্গি হামলার আশঙ্কা’ প্রকাশ করায় এই আইএস আতঙ্ক হালে পানি পায়। বিশেষ করে সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ হামলার পর এই খবরটি স্বাভাবিকভাবেই যথেষ্ট গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে পাঠকরা।

এই প্রসঙ্গে জয়নিউজ কথা বলেছে সুইডেনে নির্বাসিত বাংলাদেশি সাংবাদিক ও জঙ্গি তৎপরতা নিয়ে গবেষক তাসনীম খলিলের সঙ্গে।

তিনি জয়নিউজকে বলেন, ‘ভারতীয় সাংবাদিকের স্টোরি থেকে দেখে আমাদের বাংলাদেশে নিউজ হয়েছে যে আইএস শীঘ্রই আসছে। কিন্তু এই খবরটি প্রচারের আগে সন্ত্রাসবাদ বিশেষজ্ঞদের মতামত নেওয়া হয়নি। এ ধরণের সাংবাদিকতা ভীষণ হাস্যকর ও বিব্রতকর। এটি একটি গানের বিজ্ঞাপন মাত্র।’

অনুসন্ধানে জানা যায়, আইসিসের নতুন একটা অনুবাদ বিভাগ রয়েছে যার নাম আল মুরসালাত। সেই শাখার বাংলা বিভাগ ইসলামি ভাবাদর্শের নতুন একটা নাশীদ (ধর্মীয় গান) রিলিজ করার আগে তাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেয় “শীঘ্রই আসছে ইনশাল্লাহ”। অর্থাৎ শীঘ্রই গানটি অনলাইনে আসতে যাচ্ছে। নতুন গানের আগমনের খবরটি হয়ে গেছে, আইসিসের বাংলায় আগমনের আতঙ্ক! ভারতের প্রথম সারির জাতীয় দৈনিক টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক সাংবাদিক রাজ শেখর শনিবার বেলা ১২টা ১৩ মিনিটে তাদের অনলাইন সংস্করণে প্রথম সংবাদ প্রকাশ করে- ’Indicating that Islamic State could be planning an attack in Bangladesh or West Bangle’ । লিঙ্ক: https://bit.ly/2XRogXE

জানা যায়, টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সংবাদটির হুবহু বাংলা অনুবাদে বাংলাদেশে এই আইএস আতঙ্ক তৈরি হয়। ভারতীয় সাংবাদিকতার বরাতে পরিবেশিত সেই নিউজ আধাঘণ্টার মধ্যে বাংলাদেশসহ পশ্চিমবঙ্গের পাঠকদের মধ্যে আইএস-এর হামলা নিয়ে আতঙ্ক তৈরি করে ও মনযোগ আকর্ষণ করে। এতে বলা হয়- বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গে হামলার পরিকল্পনা করছে ইসলামিক স্টেট বা আইএস! ইসলামিক স্টেটকে সমর্থনকারী একটি টেলিগ্রাম চ্যানেলে সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া একটি পোস্টার এমনই ইঙ্গিত করছে। ওই পোস্টারে বাংলায় লেখা, ‘শীঘ্রই আসছি, ইনশাল্লাহ..।’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পশ্চিমবঙ্গের সিনিয়র সাংবাদিক অনমিত্র চট্টোপাধ্যায় জয়নিউজকে বলেন, বাংলাদেশ এবং ভারতে সন্ত্রাসবাদী হামলার আশঙ্কা নেই, তা নয়। কিন্তু একটি খবরকে যথাযথভাবে গুরুত্ব দিয়ে পরিবেশন না করলে গণমাধ্যম নিজেরাই সন্ত্রাসবাদের প্রচারকের হাতিয়ারে পরিণত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়। এসব সংবাদ প্রচারের আগে সাংবাদিকতার দায়িত্বশীলতা বেশি দরকার।

জয়নিউজ/বিশু

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...