হালদায় বাঁধ দিয়ে দূষণরোধ করলেন প্রশাসন!

0
হাটহাজারীতে তেলবাহী ওয়াগন থেকে মরা ছড়ায় ছড়িয়ে পড়া ফার্নেস অয়েল হালদার পরিবেশের বিপর্যয় হতে পারে এমন শঙ্কায় বিভিন্ন স্পটে ১২টির মত সাময়িক বাঁধ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।
সোমবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা থেকে রাত জেগে মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত পৌরসভার টিম ও স্থানীয় এলাকাবাসী মিলে খাল থেকে ছেঁকে প্রায় ১২ হাজার লিটার ফার্নেস অয়েল তুলে নিয়েছে।
এর আগে ইউএনও রুহুল আমীন ঘোষণা দেন, খালে ছড়িয়ে থাকা সংগৃহীত ফার্নেস অয়েল ২০টাকা মূল্যে কিনে নেওয়া হবে। তাই কেউ টর্চ লাইট,আবার কেউ চার্জ লাইটের আলোতে খাল থেকে ছেঁকে ফার্নেস অয়েল সংগ্রহের কাজে নেমে পড়েন।
সোমবার মধ্যরাতে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ফার্নেস অয়েল সংগ্রহকারীদের গায়ে ছোপ ছোপ লেগে আছে। কেউ চামচ দিয়ে, কেউ কোনোরকম হাত ধুয়ে খাচ্ছেন রাতের খাবার। তাও খাল পাড়ে বসে। তারা সংখ্যায় ৫০-৬০ জন, সঙ্গে আছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমীনও।
হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন জয়নিউজকে বলেন, রেলওয়ের কর্মকর্তারা দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তারা জানিয়েছেন, প্রতিটি ওয়াগনে ২৬ হাজার লিটার ফার্নেস অয়েল ছিল। দুর্ঘটনাকবলিত তিনটি ওয়াগনের একটি লিক হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত প্রায় ১২ হাজার লিটার তেল পৌরসভার টিম ও স্থানীয় এলাকাবাসী মিলে খাল থেকে সরাতে পেরেছেন বলে তিনি জানান।
জয়নিউজ/তালেব/বিশু
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...