নিজের সম্মানি ১২ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে তুলে দিলেন মেয়র নাছির

0

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের মার্চ মাসের সম্মানি তুলে দেওয়া হলো ১২ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে। এর মধ্যে রয়েছে অটিজম স্কুল, মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও অস্বচ্ছল অসুস্থ ব্যক্তি।

বুধবার (৮ মে) দুপুরে সিটি করপোরেশনে নিজ কার্যালয়ে তিনি এ সম্মানির টাকা তুলে দেন।

সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা যায়, মেয়রের প্রতি মাসের সম্মানির টাকা বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মাঝে চসিকের অতিরিক্ত প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির চৌধুরীর অধীনে তুলে দেওয়া হয়।

হুমায়ুন কবির চৌধুরী জয়নিউজকে বলেন, দায়িত্ব নেওয়ার পর মেয়র মহোদয় ঘোষণা দেন তিনি কোনো সম্মানি নিবেন না। সরকারের দেওয়া সেই সম্মানি সমাজের দুস্থ, অটিস্টিক, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরণ করবেন। এরই অংশ হিসেবে আমরা প্রত্যেক মাসে মেয়র মহোদয়ের সম্মানির টাকা বিতরণ করি।

তিনি আরো বলেন, এ মাসে তিনটি অটিজম স্কুলকে ৭০ হাজার টাকা, দুইজন মেডিকেল শিক্ষার্থীকে ১০ হাজার টাকা, পাঁচজন শিক্ষার্থীকে পড়ালেখার খরচের জন্য ২৭ হাজার টাকা, একটি বিদ্যালয় পরিচালনার জন্য ১০ হাজার টাকা এবং এক ব্যক্তির চিকিৎসার খরচের জন্য পাঁচ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়।

টাকা গ্রহণ করে কনসার্ন সার্ভিস ফর ডিজেবলডের (সিএসডি) সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ গুপ্ত বিশু জয়নিউজকে বলেন, মেয়রের এ উদ্যোগ শুধু প্রশংসনীয় নয়, বরং অভিবাদনযোগ্য। কারণ মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন যে উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন তা সমাজের সব বিত্তবানদের অনুসরণ করা উচিত। মেয়র নাছির সমাজের একজন অনুসরণীয় ব্যক্তি।

এ বিষয়ে আলাপকালে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন জয়নিউজকে বলেন, আমি জনকল্যাণে রাজনীতি করি। সৃষ্টিকর্তা আমাকে এ পৃথিবীতে শুধু ভোগবিলাসের জন্য পাঠাননি। সমাজ ও রাষ্ট্রের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে আমি সারাজীবন সমাজের কল্যাণে কাজ করার চেষ্টা করেছি। নগরের অসহায়, দুস্থ কিছু মানুষ, কিছু ছাত্র, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের কল্যাণে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানের কল্যাণে আমার সম্মানির টাকা ব্যয় হচ্ছে এটা আমার জন্য আনন্দের।

সমাজের কল্যাণে তিনি সব বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

জয়নিউজ/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...