ছাত্রলীগ পরিচয়ে সাংবাদিক লাঞ্ছিত, গাড়ি ভাংচুর

0

নগরের আগ্রাবাদ মোড়ে স্লোগান দিয়ে যাত্রীবাহি বাস ভাংচুর ও দায়িত্বরত এক ফটো সাংবাদিককে মারধর করলো ছাত্রলীগ নামধারী দুর্বৃত্তরা। এ সময় বাসে থাকা কয়েক যাত্রী গ্লাসের আঘাতে আহত হয়। মোড়ে পুলিশ তাদের বারবার বাধা দিলেও তারা গাড়ী ভাংচুর ও এক ফটো সাংবাদিককে মারধর করেন। মাসুম নামের এক ছাত্রলীগ নেতার পরিচয়ে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (৩১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৩টায় এ ঘটনা ঘটে। লাঞ্চনার শিকার ফটো সাংবাদিকের নাম আজীম অনন। তিনি অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিভয়েসটোয়েন্টিফোর.কমে কর্মরত আছেন।

বাসের চালকের সহকারী ফয়সাল জয়নিউজকে বলেন, অলংকার থেকে আগ্রাবাদ মোড়ে এসে যাত্রী নামানের জন্য স্টপেজে বাস থামানো হয়। গাড়ীর সামনে একটি রিক্সা দাঁড়ানো ছিল প্রায় ৩-৪ হাত দূরে। রিক্সা থেকে নেমে এক ব্যক্তি বলে আমার বাচ্চা ভয় পেয়েছে। তখন সে নিজেকে ছাত্রলীগ নেতা বলে পরিচয় দেয়। সে আমাকেও মারতে বার বার দৌড়ে আসে। গাড়ী রিক্সাতে না লাগার পরও আমি চাকলকে নামিয়ে তার কাছে ক্ষমা চাওয়াই। এরপরও ছাত্রলীগ পরিচয় দানকারী ব্যক্তি কয়েকজন ছেলেকে ফোন দিয়ে এনে গাড়ীর গ্লাস ভাংচুর করে এবং এক ফটো সাংবাদিককেও মারধর করে তারা। ভাংচুর চলাকালীন বাসের বেশ কয়েকজন যাত্রীও আহত হয়েছে। এরপর তারা রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।

তবে এই নামের কোন যুবলীগ কর্মী আছে কিনা জানতে চাইলে মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফরিদ মাহমুদ জয়নিউজকে বলেন, দক্ষিণ আগ্রাবাদ ওয়ার্ডে বাইট্টা মাসুম নামের কোন যুবলীগ কর্মী নেই। বিভিন্ন অপরাধে যুবলীগ কর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকলে যদি প্রমাণ হয় তাহলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। দায়িত্বকালে এমন হামলা মেনে নেওয়া যায় না। তাদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনা দরকার। আমিও এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এদিকে হামলার শিকার বাসের মালিক মো. ফারুক জয়নিউজকে বলেন, পুলিশের হাতে ভিডিও ফুটেজ রয়েছে। আমরা হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে থাকা ডবলমুরিং থানার এসআই আব্দুর রাজ্জাক রুবেল জয়নিউজকে বলেন, আগ্রাবাদ মোড়ে ৭ নম্বর রোডের একটি বাসে ভাংচুর চালায় কয়েকজন ছেলে। এ ঘটনায় আমরা গাড়ীটি আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের হাতে হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ আছে। এ ঘটনায় গাড়ীর মালিক পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের আটক করা হবে। কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়।

এদিকে ভাংচুর চলাকালীন সময়ে ছবি তোলায় চট্টগ্রামের অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিভয়েস টোয়েন্টিফোর.কম এর ফটো সাংবাদিক আজীম আননের উপর হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ ফটো জার্ণালিস্ট এসোসিয়েশন চট্টগ্রামের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...