নগরবাসীকে নগরপিতার বিশেষ ঈদি

0

এবারের ঈদে নগরবাসীকে কী উপহার দেবেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন? জানতে পড়ুন মুহাম্মদ জুলফিকার হোসেনের বিশেষ প্রতিবেদন।

এমন দিন গেছে, আগ্রাবাদ এক্সেস রোডে মানুষকে হাঁটতে হয়েছে কোমরপানি পার হয়ে। সড়কের বিভিন্ন অংশে ছিল খানা-খন্দ। নগরের গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে বছরজুড়ে ভোগান্তি ছিল নিত্যচিত্র।

দুর্ভোগ কম পোহাতে হয়নি পোর্ট কানেকটিং রোডেও। বিভিন্ন সময় সংস্কার হয়েছে। কিন্তু তা কতটা টেকসই বা কতটুকু পরিকল্পিত তা প্রশ্নসাপেক্ষ।

আ জ ম নাছির উদ্দীন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তাঁর উন্নয়ন ভাবনার বড় একটা অংশজুড়ে ছিল ওই দুই সড়কের উন্নয়ন।

এলাকাবাসীর দাবি ছিল অনেক- বর্ষায় জলাবদ্ধতার দুর্ভোগ কমাতে উঁচু করতে হবে সড়ক। যানজট কমাতে সড়ক করতে হবে আরো প্রশস্ত। আপস করা চলবে না নির্মাণকাজের মানেও।

মেয়র কোমর বেঁধে নেমে পড়লেন। সঙ্গে ছিলেন করপোরেশনের উর্ধ্বতন কর্তারাও। অর্থায়নে এগিয়ে এলো জাপান সরকারের উন্নয়ন সংস্থা জাইকা। দেড়শ’ কোটি টাকা বরাদ্দে ২০১৭ সালের নভেম্বরে শুরু হলো কাজ।

মেয়রের স্পষ্ট বার্তা ছিল, কাজে কোনো ধরনের গাফিলতি মেনে নেওয়া হবে না। শুরু থেকেই মেয়র নিজে কাজের অগ্রগতি নিয়ে নিয়মিত খোঁজ নেন। সরেজমিনে ঘুরে দেন প্রয়োজনীয় নির্দেশনা।

কাজ চলাকালীন প্রতিবন্ধকতাও কম ছিল না। কিন্তু উন্নয়নের স্বার্থে মেয়র সব পক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করে সেই প্রতিকূলতা সামলেই কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন।

অবশেষে এলো সুখবর। ১৩ মে নগরপিতা ঘোষণা দিলেন- আগ্রাবাদ এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোডের কার্পেটিং লেয়ারের কাজ শেষ হতে পারে ঈদের আগেই!

সবকিছু ঠিক থাকলে ঈদের আগেই সড়ক দুটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন। এবারের ঈদে এটিই নাকি নগরবাসীর জন্য নগরপিতার বিশেষ ঈদি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে নগরপিতা আ জ ম নাছির উদ্দীন জয়নিউজকে বলেন, আবহাওয়া ঠিক থাকলে সোমবার থেকে কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু হবে। প্রথম ধাপে চার ইঞ্চি লেয়ারের কার্পেটিং হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে এক্সেস রোড ৭ ইঞ্চি ও পোর্ট কানেকটিং রোড ৯ ইঞ্চি কার্পেটিং করা হবে।

সড়ক দুটি নগরবাসীর জন্য এবারের ঈদের উপহার মন্তব্য করে মেয়র বলেন, প্রথম লেয়ারের কার্পেটিংয়ের কাজ শেষে ঈদের আগেই এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোড যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকার বাসিন্দা সাংবাদিক ইয়াসীন হীরা জয়নিউজকে বলেন, আগ্রাবাদ এক্সেস রোড আগের চেয়ে অনেক উঁচু হয়েছে। তবে ড্রেনেজ সিস্টেমসহ অনেক কাজ এখনও বাকি রয়ে গেছে। ঈদের আগে সড়কটি চালু করা গেলে এলাকার মানুষের অনেক উপকার হবে।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ জয়নিউজকে বলেন, সোমবার থেকে আগ্রাবাদ এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোডের কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু হবে। ঈদের আগেই এক পাশের কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ করে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

ড্রেনেজ সিস্টেমসহ সড়কের অন্যান্য উন্নয়নকাজ চলমান থাকবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এদিকে পোর্ট কানেকটিং রোড বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে এবং আগ্রাবাদ এক্সেস রোড প্রাক্তন মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে নামকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। গত ২ এপ্রিল এক আলোচনা সভায় চসিকের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান নগরপিতা নাছির।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...