পতিতাবৃত্তির টাকা নিয়ে ত্রিমুখী বিরোধ, হত্যাকারী গ্রেপ্তার

0

নগরের বায়েজিদ বোস্তামী থানার আমিন জুট মিল এলাকা থেকে অজ্ঞাত অর্ধ-গলিত তরুণীর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় হত্যাকারী মো. নেজাম উদ্দিনকে (২৯) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৯ মে) সন্ধ্যায় নগরের মুহুরিপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে বায়েজিদ থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নিহত তরুণীর নাম রেবেকা সোলতানা মনি (২৫)। তিনি পেশায় পতিতা।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আতাউর রহমান খন্দকার জয়নিউজকে জানান, জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে নেজাম উদ্দিন। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ভিকটিমের ব্যবহৃত মুঠোফোন ও জামা-কাপড় উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কারণ সম্পর্কে নেজাম পুলিশকে জানায়, পতিতালয়ে (ঘটনাস্থলে) পতিতা, খদ্দের নেজাম উদ্দিন ও এক দালালের মধ্যে পতিতাবৃত্তিতে উপার্জিত টাকার ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে ত্রিমুখী বিরোধ দেখা দেয়। এর জের ধরেই ওই দালালের পরিকল্পনায় রেবেকাকে হত্যা করে নেজাম। প্রথমে সে রেবেকাকে গলা টিপে, পরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মে বায়েজিদ বোস্তামী থানার আমিন জুট মিলের উত্তর গেইট সংলগ্ন মৃধাপাড়া থেকে রেবেকার লাশ উদ্ধার করা হয়। অর্ধগলিত ওই লাশটি অজ্ঞাত হিসেবেই থানায় মামলা হয়।

জয়নিউজ/রুবেল/শহীদ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...