শুভেচ্ছা বিনিময়ে কাটবে বিএনপি নেতাদের ঈদ

0

মুসলমানদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। দেশের নানা শ্রেণি-পেশার ব্যস্ত নাগরিকরা ঈদ উদযাপন করতে ছুটে যাচ্ছেন পরিবারের কাছে। প্রিয়জনদের সঙ্গে ভাগাভাগি করবেন ঈদের আনন্দ।

চট্টগ্রামের বিএনপি নেতারাও এর বাইরে নন। দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে থাকার কারণে ঘটা করে কোন অনুষ্ঠান পালন না করলেও নেতারা দলীয় নেতাকর্মীদের চাঙ্গা রাখতে নিজ নিজ এলাকায় ঈদ করবেন। কেউ কেউ ঈদের দিন ঢাকায় থাকলেও পরে নিজ নির্বাচনি এলাকায় এসে এলাকাবাসীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। চট্টগ্রামের বিএনপি নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন তা জানতে পড়ুন জয়নিউজের বিশেষ আয়োজন।

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী: বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে নগরের কাট্টলীতে নিজবাড়ি সংলগ্ন ঈদগাহে নামাজ আদায় করবেন। সেখানে স্থানীয়দের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের পরে মেহেদিবাগের বাসভবনে ফিরে আসবেন। সেখানে দলীয় নেতাকর্মীদের জন্য থাকবে নানা আয়োজন। এছাড়া ঈদের পরদিন মেহেদিবাগের বাসভবনে থাকছে বিশেষ মেজবানের ব্যবস্থা।

এম মোরশেদ খান: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খান এবার ঢাকায় ঈদ উদযাপন করবেন। গুলশানে নিজ বাসভবনে তিনি ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

আবদুল্লাহ আল নোমান: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ নোমান প্রতিবারের মতো এবারও চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখান থেকে বাসায় ফিরে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। তবে এবার কোনো মেজবানের আয়োজন করছেন না এ বিএনপি নেতা। মেজবানের সেই অর্থ মামলা-হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত নেতাকর্মীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে।

মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন প্রতিবারের মতো এবারও চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। পরে হাটহাজারীর মীরেরহাটে নিজবাড়িতে যাবেন। সেখানে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে নগরের বাসভবন ডালিয়াকুঞ্জে ফিরবেন। সেখানে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। তার ছেলে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মীর হেলাল উদ্দিনও চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন।

আসলাম চৌধুরী: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরী গত তিন বছরের মতো এবারও চট্টগ্রাম কারাগারে ঈদ উদযাপন করবেন। রাষ্ট্রদ্রোহ মামলাসহ বিভিন্ন মামলায় দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে আছেন বিএনপির এ নেতা।

মাহবুবের রহমান শামীম: বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলার নিজগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সেখানে স্থানীয় ঈদগাহে নামাজ শেষে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। ঈদের পরেরদিন তিনি চট্টগ্রামে নিজ বাসভবনে ফিরবেন। পরে চট্টগ্রামে বিভাগীয় বিএনপি নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিজ বাসভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন: চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন চট্টগ্রাম শহরে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখান থেকে ওয়ার সেমিট্রির বাসভবনে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

জাফরুল ইসলাম চৌধুরী: দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখান থেকে তিনি বাঁশখালীতে গ্রামের বাড়িতে যাবেন। সেখানে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

আবু সুফিয়ান: চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আবু সুফিয়ান চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখান থেকে চান্দগাঁওয়ের বাসায় ফিরে যাবেন। সেখানে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

আবুল হাশেম বক্কর: চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর চট্টগ্রামে ঈদ উদযাপন করবেন। সকালে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। সেখান থেকে এনায়েত বাজারের বাসভবনে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। ঈদের পরদিন নেতাকর্মীদের জন্য বাসভবনে থাকছে বিশেষ আয়োজন।

জয়নিউজ/এমজেএইচ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...