মুদিপণ্যে বাজেটের ঝাঁজ

0

প্রস্তাবিত বাজেটের প্রভাবে এখনো কাঁচা বাজারে না পড়লেও, বাজেটের ছোঁয়া লেগেছে মুদিপণ্যে। নগরের মুদিপণ্যের পাইকারি ও খুচরা বাজার ঘুরে জানা গেছে, বেড়েছে রসুন, আদা ও পেঁয়াজের দাম ।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনের পরদিনই বেড়ে গেছে পেঁয়াজ আদা রসুনের দাম । প্রতি কেজি রসুনের দাম ২০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

দেখা যায়, মাত্র ৩ দিনের ব্যবধানে রসুনের দাম মানভেদে কেজি প্রতি ১৬০ টাকা থেকে ১৭০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। গত সপ্তাহে প্রতি কেজি ১২০ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি হওয়া ভারতীয় রসুন ২০ থেকে ৩০ টাকা বেড়ে শুক্রবার (১৪ জুন) বিক্রি হয় ১৬০ টাকায়। পেঁয়াজ ৩দিন আগে প্রতি কেজি ২৫ টাকায় বিক্রি হলেও ৫ টাকা বেড়ে ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আদা বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকায়, যা ছিল ১২০ টাকা।

জামাল খান এলাকার খুচরা ব্যবসায়ী হামিদ জয়নিউজকে বলেন, তিনদিন আগে বাজারে রসুনের দাম ছিল ১২০ টাকা। যেটা পাইকারি ব্যবসায়ীরা ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি করছে। আমরা খুচরা ব্যবসায়ীরা ১৬০ থেকে ১৭০ টাকায় বিক্রি করছি। আমার দোকানে দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৩০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ২৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তবে তিনি জানান, চালের বাজার এখনো অনেকটা স্থিতিশীল। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে মোটা স্বর্ণা চাল কেজি প্রতি ৪৫ টাকা, পারিজা চাল ৪৪-৪৫ টাকা, মিনিকেট (ভালো মানের) ৫৬ টাকা, বাসমতি ৬০ টাকা, কাটারিভোগ ৮০ টাকায়, হাস্কি নাজিরশাইল ৪১ টাকা এবং পোলাওয়ের চাল পুরাতন ১০০ ও নতুন ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

জয়নিউজ/হিমেল/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...