বেড়েছে মাছের দাম

0

বাজারে সবজি ও মাংসের দাম স্থিতিশীল থাকলেও, বেড়েছে মাছের দাম। মাছ ধরার ওপর সরকারি নিষেধাজ্ঞার কারণে সাগরে মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। এ কারণে বাজারে সব ধরনের মাছের দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছেন মাছ বিক্রেতারা।

শুক্রবার ( ২১ জুন) কাজীর দেউড়ি কাঁচাবাজার, রিয়াজউদ্দিন বাজার, চকবাজারসহ বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি ঢ্যাঁড়শ ৩০ টাকা, ঝিঙে ৩৫ টাকা, কাঁকরোল ৩৫ টাকা, তিতকরলা ৪৫ টাকা, পটল ৪০ টাকা, বেগুন ৩৫ টাকা, শিম ৩৫ টাকা, বরবটি ৪৫ টাকা, শসা ৩৫ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, টমেটো ৩০ টাকা ও মিষ্টি কুমড়া ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কাজীর দেউড়ি বাজারের সবজি বিক্রেতা আলী আজগর জয়নিউজকে বলেন, বর্তমানে সবজির যোগান খুব ভালো। বিভিন্ন জায়গা থেকে সবজি আসছে। এ কারণে সবজির দাম কম।

এদিকে সবজির পাশাপাশি কিছুটা কমেছে মুরগির দামও। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৩৫ টাকায়, সোনালী মুরগি ২৪০ টাকায়, দেশি মুরগি ৪৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারগুলোতে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৬৫০ টাকায় এবং ছাগলের মাংস ৮৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ব্যাটারি গলি থেকে কাজীর দেউড়ি বাজারে এসেছেন ব্যাংকার নোমান হয়দার। তিনি জয়নিউজকে বলেন, আমি এখান থেকেই বাজার করি। অন্য সব বাজারের তুলনায় এখানে দামটা একটু বেশি। তবে ভালো মানের এবং তাজা শাকসবজি ও মাছ এ বাজারে পাওয়া যায়। গত সপ্তাহের তুলনায় মাছের দামটা একটু বেশি। বিক্রেতারা বলছে, সাগরে মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। যার কারণে দাম বেশি।

এ বাজারে প্রতি কেজি কাতাল ৩৭০ টাকা, ইলিশ ১২শ’ টাকা, পাঙ্গাস ১৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৫০ টাকা, রূপচাঁদা ৮২০ টাকা, রুই ৩২০ টাকা, চিংড়ি ১ হাজার টাকা, কই মাছ ২১০ টাকা ও শিং মাছ ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কাজীর দেউড়ি বাজারের মাছ ব্যবসায়ী সুকুমার জলদাস জয়নিউজকে বলেন, এখন বাজারে সামুদ্রিক মাছের সরবরাহ কম। কারণ ২৩ জুলাই পর্যন্ত মাছ ধরা বন্ধ। এ কারণে জেলেরা মাছ ধরতে যেতে পারছে না। তাই মাছের দামটা একটু বেশি।

জয়নিউজ/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...