হাটহাজারীতে গ্যাস সংকটে চরম দুর্ভোগে গৃহিণীরা

0

হাটহাজারীতে গ্যাস সংকটে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন গৃহিণীরা। শুক্রবার (২১ জুন) সারাদিন গৃহিণীরা গ্যাসের দেখা পাননি। সকাল থেকে গ্যাস সংকট থাকায় আবাসিক এলাকায় বিশেষ করে হাটহাজারী পৌরসভার বাসা-বাড়িতে রান্নাবান্নার কাজ প্রায় বন্ধ ছিল।

জানা যায়, হাটহাজারী উপজেলার চৌধুরীহাট, নন্দীরহাট, ইসলামী হাট, মদনহাট, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) এলাকা, চবি ২নং গেট, ১১ মাইল, দক্ষিণ দেওয়াননগর, হাটহাজারী বাজার, বাসস্টেশন, কলেজ গেট, কামাল পাড়া, শায়েস্থা খাঁ পাড়া ও হাটহাজারী পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে গ্যাস সরবরাহ ছিল না। ফলে এসব এলাকায় হাজার হাজার গ্রাহককে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

হাটহাজারী পৌরসভার ফটিকা গ্রামের শাহাজালাল পাড়ার গৃহিণী রহিমা বেগম জয়নিউজকে জানান, পূর্বনির্ধারিত সময়ে আমন্ত্রিত অথিতিরা আজ শুক্রবার দুপুরে আমার বাসায় আসার কথা। সকালে থেকে গ্যাস না থাকায় রান্নাবান্নাও হয়নি। তাই আমি তাদের (অতিথি) আজকে না আসার নিষেধ করেছি।

তিনি আরও জানান, কোনো প্রকার নোটিশ বা ঘোষণা দেওয়া ছাড়া গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে বেশ বেকায়দায় ফেলেছে। এতে দুর্ভোগ পোহানোর পাশাপাশি আত্মীয়-স্বজনদের কাছে লজ্জা পেতে হচ্ছে। তাছাড়া দুপুরের খাবার হোটেল থেকে এনে খেতে হয়েছে।

এদিকে পৌরসভার মেডিকেল গেট এলাকার মো. জমির নামে এক হোটেল মালিক ক্ষোভ প্রকাশ করে জয়নিউজকে জানান, সকাল থেকে গ্যাসের দেখা পাচ্ছি না। ফলে হোটেলের গ্যাসের চুলাও বন্ধ রয়েছে। প্রতিদিনের মতো তেমন কোনো নাস্তা বা খাবার তৈরি করা হয়নি। হোটেলে কাস্টমাররা এসে কোনো খাবার না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা প্রশাসনের এক কর্মকর্তা জয়নিউজকে জানান, অনেক কষ্টে বাজার থেকে লাকড়ি জোগাড় করে গিন্নি রান্নার কাজ শেষ করেছে। সকালে গ্যাস থাকলে রান্নার কাজ করতে সুবিধা হয়। বন্ধের দিনে সকালে গ্যাস না থাকা মানে আমাদের জন্য খুব বেশি কষ্টের।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...