‘কথা রেখেছে ইডিইউ’

0

‘চট্টগ্রামে বিশ্বমানের উচ্চশিক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ)। প্রতিষ্ঠাকালে ইডিইউ কথা দিয়েছিল, এখানে বিশ্বের উন্নত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টিদের মাধ্যমে ক্লাস পরিচালনা করা হবে। বর্তমানে নিয়মিতভাবে বিদেশি বিশেষজ্ঞরা ক্লাস-সেমিনার-কর্মশালা পরিচালনা করছেন ইডিইউতে। চট্টগ্রামবাসীকে দেওয়া সে কথা রেখেছে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি।’

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিনার হলে ‘কম্পেয়ারেটিভ কালচারাল স্টাডিজ’ বিষয়ক এ কর্মশালা পরিচালনা করেন দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. অমিতাভ চক্রবর্তী।

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সাহিত্য-সংস্কৃতিকে দেখার বা বিচারের একটি জনপ্রিয় ধারা হয়ে উঠেছে কম্পেয়ারেটিভ স্টাডিজ বা তুলনাত্মক পাঠ। ভিন্ন সংস্কৃতির মধ্যে তুলনামূলক বিচারের মাধ্যমে এদেরকে জানা, সংজ্ঞায়িত করার তত্ত্ব এটি। দুটো ভিন্ন অঞ্চলের সাহিত্যের তুলনাত্মক বিশ্লেষণের মাধ্যমে আমরা ঐ অঞ্চলগুলোর সংস্কৃতি, মানুষের জীবনযাপন, দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে জানতে পারি।

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান বলেন, জ্ঞানের বিশাল ক্যানভাসে প্রতিনিয়তই নতুন কিছু না কিছু যুক্ত হচ্ছে। সংযোজন-বিয়োজনে পরিবর্তিত হচ্ছে পুরনো চিন্তাধারা। তাই আমাদের শিক্ষার্থীদের জন্য এ ধরনের কর্মশালা-সেমিনারের আয়োজন নিয়মিতভাবে করা হয়। যাতে, শিক্ষার্থীরা নিজেদের জ্ঞানকে চালিত ও আধুনিক রাখতে পারে।

ইডিইউ’র ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক সাবরিন সরওয়ারের সঞ্চালনায় এতে আরো উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সামস উদ-দোহা, স্কুল অব লিবারেল আর্টসের অ্যাসোসিয়েট ডিন মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. মো. নাজিম উদ্দিন ও স্কুল অব বিজনেসের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. মোহাম্মদ রকিবুল কবির প্রমুখ।

জয়নিউজ/এমজেএইচ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...