কর্ণফুলী গ্যাসের এমডির সঙ্গে নাগরিক উদ্যোগের মতবিনিময়

0

কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের (কেজিডিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ( এমডি) সঙ্গে নাগরিক উদ্যোগের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বেলা ১২টায় কেজিডিসিএলের এমডির দপ্তরে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহসভাপতি খোরশেদ আলম সুজন নগরে গ্যাস সংযোগ পুনরায় চালু এবং প্রিপেইড মিটার স্থাপনের জন্য আহ্বান জানান।

এ সময় সুজন বলেন, দুঃখজনক হলেও সত্যি যে চট্টগ্রামের গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা নিয়েও কেজিডিসিএল গ্রাহকদের নতুন গ্যাস সংযোগ প্রদান করছে না। এতে করে চট্টগ্রামের ব্যবসা বাণিজ্য এবং গৃহস্থালী কাজে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী সদিচ্ছায় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে কোটি কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দিচ্ছেন।

ইতোমধ্যে দেশের জনগণের গ্যাসের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে প্রাকৃতিক গ্যাসের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশ থেকে এলএনজি আমদানি করছে সরকার। কেজিডিসিএল চট্টগ্রামের জনগণকে আশ্বস্ত করেছিল এলএনজি আসার পরে নগরীতে নতুন গ্যাস সংযোগ চালু হবে।

তিনি চট্টগ্রামের গুরুত্ব বিবেচনা করে নতুন গ্যাস সংযোগ প্রদান করার বিষয়টি মন্ত্রণালয়ে উপস্থাপন করার অনুরোধ জানান।

তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি চট্টগ্রামে গ্যাস লাইনে বেশ কিছু প্রিপেইড মিটার স্থাপন করা হয়েছিল। প্রিপেইড মিটার স্থাপনের ফলে জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। আবার প্রিপেইড স্থাপন কার্যক্রম বন্ধ হওয়ার ফলে দুর্নীতিবাজরা উৎসাহিত হবে বলে মত প্রকাশ করেন তিনি।

কেজিডিসিএলের এমডি খায়েজ আহম্মদ মজুমদার নাগরিক উদ্যোগের নেতৃবৃন্দকে জনগণের পাশে থেকে কাজ করার জন্য ধন্যবাদ জানান।
এসময় তিনি বলেন, নাগরিক উদ্যোগের দাবিগুলো খুবই প্রয়োজনীয় এবং বাস্তবসম্মত। দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামে নতুন গ্যাস সংযোগ প্রদান বন্ধ রয়েছে সত্যি। গ্যাস সংযোগ বন্ধের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য এবং গৃহস্থালী কাজে চট্টগ্রামবাসী দুর্ভোগের বিষয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে অবগত।

তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে কেজিডিসিএল নগরে ৬০ হাজার প্রিপেইড মিটার স্থাপন করেছে। আরো ২ লাখ প্রিপেইড মিটার স্থাপনের জন্য মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাব অনুমোদন হলেই প্রিপেইড মিটার স্থাপনের কাজ শুরু হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেজিডিসিএলের সচিব সালেউদ্দিন সরওয়ার, রাজনীতিবিদ হাজী মো. ইলিয়াছ, সংগঠনের সদস্য সচিব হাজী মো. হোসেন, নিজাম উদ্দিন, কেজিডিসিএল শ্রমিক কর্মচারী সংসদের সভাপতি ফরিদ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মো. আসলাম, মো. ইসহাক, মাকসুদুর রহমান চৌধুরী, কেজিডিসিএল ঠিকাদার সমিতির সভাপতি একরাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুন রহিম, মো. শাহজাহান, শেখ মামুনুর রশিদ, জাহাঙ্গীর আলম, মো. নাছির উদ্দিন, স্বরূপ দত্ত রাজু, মো. ওয়াসিম, আবুল হাসনাত, কামরুল হাসান রানা, মোজাম্মেল হক সুমন, ও সালাউদ্দিন জিকু।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...